উইঘুর প্রসঙ্গে সমালোচনা করায় জি-৭ এর ওপর ক্ষুব্ধ চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৯ পিএম, ১৪ জুন ২০২১

জিনজিয়াংয়ের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় উইঘুর ও হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থীদের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে চীনের সমালোচনা করায় জি-৭ এর ওপর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে দেশটি। খবর এএফপির।

যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত জি-৭ নেতাদের সম্মেলনের পর জোটের পক্ষ থেকে জিনজিয়াংয়ে উইঘুর সম্প্রদায় ও হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থী আন্দোলনকারীদের ওপর চীনের দমন-পীড়নের বিরুদ্ধে করা সমালোচনা করা হয়। জোটের অন্যতম শরিক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চীনের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘মানবাধিকারের আন্তর্জাতিক নিয়ম মেনে আরও দায়িত্বশীল আচরণ করুন।

সোমবার যুক্তরাজ্যে অবস্থিত চীনের দূতাবাস জি-৭ এর এই বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

দূতাবাসের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনে এবং চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের উদ্দেশ্যে জিনজিয়াং সংক্রান্ত ইস্যুর সুবিধা নিচ্ছে জি-৭, যা আমরা তীব্রভাবে বিরোধীতা করছি।’

বিবৃতিতে জি-৭ এর বক্তব্যকে ‘মিথ্যা, গুজব ও ভিত্তিহীন দাবি বলে’ উল্লেখ করে চীনা দূতাবাস।

বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা দাবি করে আসছে, জিনজিয়াংয়ে উইঘুরসহ অন্যান্য সংখ্যালঘুদের চীন বন্দি শিবিরে আটকে রেখেছে। তবে চীন বারবার দাবি করে আসছে, তারা জিনজিয়াংয়ে ইসলামিক চরমপন্থা দমনের লক্ষ্যে কাজ করছে।

জি-৭ এর বক্তব্যে আরও বলা হয়, ‘আমরা আমাদের মূল্যবোধ তুলে ধরব, যার মধ্যে রয়েছে চীনকে মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা মেনে চলতে আহ্বান জানানো।’

জি-৭ এর নেতারা করোনাভাইরাসের উৎস জানতে চীনে একটি নতুন অনুসন্ধান চালানোরও দাবি তোলেন।

এ প্রসঙ্গে চীনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘বর্তমান মহামারিটি এখনও বিশ্ব জুড়ে চলছে এবং উৎস সন্ধানের কাজটি বৈশ্বিক বিজ্ঞানীদের দ্বারা পরিচালিত হওয়া উচিত, এটিকে রাজনীতিকরন করা উচিত নয়।’

এমকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]