ত্ব-হার ‘সন্ধান’ ও ‘মুক্তি’ চেয়ে অ্যামনেস্টির বিবৃতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ১৪ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৪:১৯ পিএম, ১৪ জুন ২০২১

চারদিন ধরে নিখোঁজ আলোচিত বক্তা আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানের সন্ধান চেয়ে বিবৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। ত্ব-হা যদি নিরাপত্তা বাহিনীর হেফাজতে থাকে, তাহলে দ্রুত মুক্তি দেয়ারও দাবি জানিয়েছে সংস্থাটি।

সোমবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সাউথ এশিয়ার ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ত্ব-হা ‘নিখোঁজ’ সংক্রান্ত দেশীয় একটি পত্রিকার প্রতিবেদন শেয়ার করা হয়েছে। এর সঙ্গে দেয়া বিবৃতিতে সংস্থাটি বলেছে, আবু ত্ব-হা মোহাম্দ আদনান ও তার তিন সঙ্গী গত বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে নিখোঁজ হন।

অ্যামনেস্টির দাবি, নিখোঁজ ত্ব-হা ও তার সঙ্গীদের অবস্থান শনাক্তে বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষকে দ্রুত এবং নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করতে হবে। আর তারা যদি রাষ্ট্রীয় হেফাজতে থাকে, তাহলে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রংপুর থেকে ঢাকায় রওয়ানা হওয়ার পর থেকে ত্ব-হার ‘খোঁজ মিলছে না’ বলে দাবি করেন তার শ্যালক জাকারিয়া হোসেন। গত রোববার (১৩ জুন) তিনি জাগো নিউজের কাছে অভিযোগ করেন, ত্ব-হার সঙ্গে থাকা আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দীন ফয়েজেরও ‘খোঁজ মিলছে না’।

jagonews24

জাকারিয়া বলেন, ‘বৃহস্পতিবার রংপুর থেকে ঢাকায় আসার সময় তারা গাবতলী থেকে নিখোঁজ হন। তার সঙ্গে সর্বশেষ যোগাযোগ হয় বৃহস্পতিবার রাত ২টা ৩৬ মিনিটে। এরপর থেকে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত তাদের অবস্থান সম্পর্কে কোনো তথ্য জানা যায়নি।’

জাকারিয়ার অভিযোগ, নিখোঁজ হওয়ার পরদিন শুক্রবার (১১ জুন) ত্ব-হার স্ত্রী সাবেকুন নাহার গাবতলী সংলগ্ন দারুসসালাম থানায় লিখিত অভিযোগ করতে গেলেও পুলিশ তা গ্রহণ করেনি।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) দারুসসালাম জোনের সহকারী কমিশনার মিজানুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ‘নিখোঁজের পরিবার কোনো অভিযোগ করেনি। আর অভিযোগ যদি না নেয়া হয়ে থাকে, তাহলে তারা থানায় এলে অভিযোগ নেয়া হবে।’

দারুসসালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোফায়েল আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, ‘শুক্রবার ত্ব-হার পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে থানায় এসেছিলেন। কিন্তু তারা কোনো ধরনের লিখিত অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

জানা গেছে, রংপুর সদরের বাসিন্দা ত্ব-হা নিজেকে ইসলামী স্কলার (পণ্ডিত) দাবি করেন। পড়াশোনা শেষ না হলেও তিনি ইসলাম ধর্মীয় বিভিন্ন স্পর্শকাতর বিষয়ে নিজের মতো করে ব্যাখা দিয়ে যাচ্ছেন অনেকদিন ধরেই, যা নিয়ে বিতর্ক আছে। সম্প্রতি ইউটিউবে প্রকাশিত তার বক্তব্যে ঢাকাকে ‘কেয়ামতের শহর’ হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি। নারীর ক্ষমতায়নের বিরুদ্ধেও তার বক্তব্য আছে ইউটিউবে।

কেএএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]