কানাডায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় পরিবর্তন আসছে

আহসান রাজীব বুলবুল
আহসান রাজীব বুলবুল আহসান রাজীব বুলবুল , কানাডা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫:০৭ পিএম, ২৬ জুন ২০২১

কানাডায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে বেশ পরিবর্তন আসছে। দেশটিতে করোনার প্রকোপ কমতে শুরু হলেও স্থানীয়দের মাঝে এখনো শঙ্কা কমেনি। প্রতিদিনই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত-মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অন্যদিকে কানাডায় গ্রীষ্মের আমেজ শুরু হলেও অনেকেই ঘর থেকে এখনো বের হচ্ছে না স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে।

যদিও দুটি ডোজ সম্পূর্ণকারীরা মনে করেছেন তারা নিরাপদ, কিন্তু আসলে তা নয়। অনেকেই দুটি ডোজ টিকা নেবার পর ও আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। কানাডার প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, সরকার প্রধান এবং বিভিন্ন প্রদেশের প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মাস্ক পরাকে বাধ্যতামূলক করেছেন।

বিশিষ্ট কলামিস্ট, উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, করোনার শুরু থেকেই সরকার আগাম সতর্কতা নিতে পিছপা হননি। এমনকি এখন পর্যন্ত সরকারের নেয়া প্রতিটি পদক্ষেপেরও তিনি ভূয়সী প্রশংসা করেন।

অন্যদিকে গত ২১ জুন কানাডার ফেডারেল সরকার এক বিশেষ ঘোষণায় উল্লেখ করেছেন, আগামী ৫ জুলাই থেকে কানাডার বেশিরভাগ আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারী যেমন স্থানীয় নাগরিক, স্থায়ী বাসিন্দা এবং কিছু বিদেশি নাগরিককে যারা পুরোপুরি টিকা বা দুটি ভ্যাকসিন, নিয়েছেন, তারা সহজেই কানাডায় যাতায়াত করার অনুমতি পাবে।

আগামী ৫ জুলাই থেকে কার্যকর হওয়া নিয়মে ভ্রমণকারীরা বর্তমানে বিদ্যমান স্বাস্থ্যবিধি অনুসারে কানাডায় প্রবেশের পর ১৪ দিনের জন্য স্ব-বিচ্ছিন্ন হতে হবে না বা ৩ দিনের জন্য হোটেলে কোয়ারেন্টাইন এ থাকতে হবে না।

সোমবার নতুন পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করে কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী পট্টি হাজদু বলেছেন, ‘আমরা কানাডিয়ানদের সবাইকে বলে আসছি, আন্তর্জাতিক ভ্রমণে সহজতর পদক্ষেপগুলো তখনই নেয়া হবে, যখন আমরা দেখব স্থানীয়রা ক্রমবর্ধমানভাবে নিরাপদ হয়ে উঠছে।’

কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী পট্টি হাজদু সোমবার নতুন এই পরিকল্পনার ঘোষণায় আরও বলেছেন, ‘আপনি যদি এই গ্রীষ্মে আন্তর্জাতিকভাবে ভ্রমণ করার পরিকল্পনা করেন, তাহলে আপনি যে দেশে সফর করছেন সেগুলোর নিয়ম-কানুন পরীক্ষা করে দেখুন।’

কানাডায় আন্তর্জাতিক ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাগুলো শিথিল হবে ৫ জুলাই থেকে তবে পরিবর্তনটি সম্পূর্ণরূপে টিকা দেয়া অ-নাগরিকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয় যারা অ-অপরিহার্য বা বিনা কারণে ভ্রমণ করছেন এবং যে কোনো ভ্রমণকারী কানাডিয়ান নাগরিক পুরোপুরি ২টি ভ্যাকসিন নেন নাই, তাদের জন্য বিদ্যমান ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। কানাডার বর্ডার সার্ভিস অফিসাররা প্রতিটি ভ্রমণকারীদের পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও বিবেচনার জন্য দায়বদ্ধ থাকবেন।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় ১৪ লাখ ১২ হাজার ২শত ২৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২৬ হাজার ১শত ৯৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩ লাখ ৭৬ হাজার ৯শত ৪ জন।

এমআরএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]