ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ফের ইসরায়েলি বাহিনীর সংঘাত, আহত ১৪৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১১ পিএম, ২৪ জুলাই ২০২১

ইসরায়েলের আগ্রাসন ও অবৈধ বসতি স্থাপনের প্রতিবাদে পশ্চিমতীরের বেইতায় গতকাল শুক্রবার শত শত ফিলিস্তিনি বিক্ষোভ করেন। এসময় ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের কয়েক ঘণ্টার সংঘর্ষে অন্তত ১৪৬ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। আল জাজিরার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিনিধি জানান, শত শত ফিলিস্তিনি ইসরায়েলের দখলকৃত পশ্চিমতীরের দক্ষিণের বৈইতার এভিয়েতা চেকপোস্টের কাছে প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ করেন।

ফিলিস্তিনের ওই এলাকা ইসরাইয়েল সম্প্রসারণ নীতিতে দখল করে অবৈধ বসতি স্থাপন করছে বলে অভিযোগ বিক্ষোভকারীদের। এতে ক্ষুব্ধ ফিলিস্তিনিরা। প্রায়ই সেখানে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নাবলুসের দক্ষিণে জিভাত এভিয়েতার চেকপোস্টের কাছে কয়েক ঘণ্টা ধরে সংঘর্ষ হয়। ফিলিস্তিনিরা সেনা সদস্যদের লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ে মারলে তা প্রতিহত করে তারা। এসময় আহত দুই সেনা সদস্যকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানায় তারা।

ফিলিস্তিনি রেড ক্রিসেন্ট জানায়, বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাস ছোড়া হয়। দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১৪৬ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৯ জন গুলিবিদ্ধ।

আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করে ইসরায়েল ফিলিস্তিনের ওই এলাকায় অবৈধ বসতি স্থাপন করছে, এমন অভিযোগ বিক্ষোভকারীদের। তারা বলছেন, এ বছরের মে মাস থেকে সেখানে আবারও আগ্রাসন শুরু করে ইসরায়েল। সম্প্রতি ভবন নির্মাণের প্রয়োজনী সামগ্রী মজুত করা হয়। এভিয়েতায় বসবাসকারী ইহুদি বাসিন্দাদের বাচ্চাদের জন্য শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করতে চায় তারা।

সম্প্রতি ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট ক্ষমতায় আসার পর বসতি স্থাপনকারীরা ওই এলাকা ছেড়ে যায়। এরপর থেকে দেশটির সেনা সদস্যরা নিয়ন্ত্রণ করে রাখে ওই এলাকা। ১৯৬৭ সালের পর থেকে পশ্চিমতীর দখল করে রেখেছে ইসরায়েল। বর্তমানে ৪ লাখ ৭৫ হাজার ইহুদির বসবাস সেখানে।

এসএনআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]