বাইডেনের মুখোমুখি হচ্ছেন ইরাকি প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ২৫ জুলাই ২০২১

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন ইরাকি প্রধানমন্ত্রী মুস্তফা আল কাধেমি। সোমবার তিনি যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাচ্ছেন। এই সফরেই তার সঙ্গে বাইডেনের সাক্ষাত হওয়ার কথা রয়েছে। এই দুই নেতার বৈঠকে ইরাক থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই সফরে বাইডেন নিজেই মুস্তফা আল কাধেমিকে স্বাগত জানাবেন বলে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। এর আগে হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আগামী ২৬ জুলাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং মুস্তফা আল কাধেমি মধ্যকার বৈঠক যুক্তরাষ্ট্র এবং ইরাকের মধ্যকার কৌশলগত অংশীদারিত্ব তুলে ধরবে।

ইরানের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে ইরাকের। অপরদিকে দীর্ঘদিন ধরেই যুক্তরাষ্ট্র এবং ইরানের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফলে ওয়াশিংটনে কাধেমির এই সফর বেশ গুরুত্বপূর্ণ। ইরাকের বিভিন্ন অঞ্চলে এখনও প্রায় সাড়ে তিন হাজার বিদেশি সেনা অবস্থান করছেন। এর মধ্যে আড়াই হাজারই মার্কিন সেনা। ২০১৪ সাল থেকেই দেশটিতে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছেন এসব বিদেশি সেনারা।

ওয়াশিংটন সফরের সময় মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে কাধেমি চাপ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। তবে ইরাক থেকে এসব বিদেশি সেনা প্রত্যাহারে কয়েক বছর সময় লেগে যেতে পারে।

ইরাকে সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন মার্কিন অবস্থান লক্ষ্য করে হামলার সংখ্যা বেড়ে গেছে। চলতি বছর এসব অবস্থানে প্রায় ৫০ দফা রকেট হামলা চালানো হয়েছে। এদিকে ইরাকি বিশেষজ্ঞ সাজেদ জিয়াদ বলেন, যদি ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে তাৎপর্যপূর্ণ কোনও ঘোষণা দেয়া না হয় তবে মার্কিন বাহিনীর বিরুদ্ধে ইরানপন্থি গ্রুপগুলোর হামলা বেড়ে যাবে।

ইরাকে বেশিরভাগ মার্কিন সেনা মোতায়েন হয়েছে ২০১৪ সালে। এর আগে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময় গত বছরের আগস্টে হোয়াইট হাউসে কাধেমিকে স্বাগত জানানো হয়।

এদিকে ইরাকি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফুয়াদ হোসেন বেশ কয়েকদিন ধরেই ওয়াশিংটনে অবস্থান করছেন। তিনি ইরাকি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন যে, মার্কিন সেনাপ্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনা সফল হবে এবং এ বিষয়ে সময়সীমা জানা যাবে।

টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]