‘আইএস-সম্পৃক্ত’ নারীকে ফিরিয়ে নেবে নিউজিল্যান্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১৭ পিএম, ২৬ জুলাই ২০২১
ছবি-সংগৃহীত

জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে সম্পৃক্ত সুহায়রা আদেন নামে এক নারীকে তার দুই সন্তানসহ তুরস্ক থেকে ফেরার অনুমতি দিতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড সরকার। সোমবার (২৬ জুলাই) দেশটির সরকারের তরফ থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা।

অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড দুই দেশেরই নাগরিকত্ব ছিল সুহায়রার। কিন্তু আইএসের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা জানার পর অস্ট্রেলিয়া সুহায়রার নাগরিকত্ব খারিজ করে দেয়।

নিউজিল্যান্ডে জন্ম নেয়া সুহায়রা ছয় বছর বয়সে অস্ট্রেলিয়া যান। তারপর থেকে সেখানেই বসবাস করছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় চলে যান। আইএসের পরাজয়লগ্নে সিরিয়া থেকে তুরস্ক প্রবেশের সময় ধরা পড়েন তিনি। পরে তুরস্ক সুহায়রাকে ফিরিয়ে নিতে নিউজিল্যান্ডের প্রতি আহ্বান জানায়।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে বলেন, ওই নারীর ফেরার অনুমতি দেয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হয়েছে। এটি এমন একটি বিষয় যেখানে শিশুরাও আছে।

তিনি আরও বলেন, ২৬ বছর বয়সী ওই নারীর নাগরিকত্ব বাতিল করলে পুরো পরিবার রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়বে। এটি তুরস্কের দায়িত্ব নয়, অস্ট্রেলিয়া যখন তাদের নিতে অস্বীকৃতি জানায়, তখন আমাদেরই দায়িত্ব তাদের জায়গা দেয়ার।

এর আগে ওই নারীর সিরিয়া যাওয়ার খবরে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, যে সন্ত্রাসীরা সন্ত্রাসী সংগঠনের জন্য যুদ্ধে নামে, তারা তাদের নাগরিকত্বের অধিকার হারিয়ে ফেলে।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা তখন অস্ট্রেলিয়ার এভাবে ‘দায় এড়ানোর’ সমালোচনা করেছিলেন।

তবে সুহায়রাকে কবে দেশে ফেরত আনা হবে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত কোনো তথ্য নিরাপত্তার স্বার্থে প্রকাশ করা হবে না বলে জানা গেছে।

তুরস্কের প্রশাসন বলছে, ওই নারী আইএসের সদস্য ছিলেন এবং ইন্টারপোলের ‘ব্লু নোটিশ’ভুক্ত তিনি। অপরাধে জড়িত ব্যক্তির পরিচয়, অবস্থান ও কর্মকাণ্ড সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহের স্বার্থে ইন্টারপোল ‘ব্লু নোটিশ’ জারি করে থাকে।

এসএনআর/এইচএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]