যুক্তরাষ্ট্র-ইউরোপীয় ভ্রমণকারীদের জন্য বিশেষ সুযোগ ইংল্যান্ডের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১০ এএম, ২৯ জুলাই ২০২১

যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের ভ্যাকসিন নেয়া ভ্রমণকারীদের জন্য বিশেষ সুযোগ দিচ্ছে ইংল্যান্ড। এসব দেশের ভ্রমণকারীরা ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড এবং ওয়েলসে ভ্রমণ করলে তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না। যারা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজই নিয়েছেন তারা কোয়ারেন্টাইন ছাড়া স্বাভাবিকভাবেই ইংল্যান্ডের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণ করতে পারবেন। খবর বিবিসির।

আগামী সোমবার থেকেই নতুন এই নিয়ম কার্যকর হতে যাচ্ছে। বর্তমানে যুক্তরাজ্যের যেসব নাগরিক ভ্যাকসিনের দু'টি ডোজ নিয়েছেন তারা অন্য দেশ থেকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশের সময় কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে না। যুক্তরাজ্য কর্তৃপক্ষ বলছে, নতুন করে বিধিনিষেধে পরিবর্তন আনার ফলে বিদেশে থাকা লোকজন তাদের পরিবার, বন্ধু এবং প্রিয়জনের সঙ্গে একত্রিত হতে পারবেন।

যুক্তরাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী গ্র্যান্ট শ্যাপস বলেন, নতুন নিয়ম সেসব লোকজনের ওপর কার্যকর হবে যারা যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের অনুমোদিত ভ্যাকসিনের দুটি ডোজই গ্রহণ করেছেন। তাদের যুক্তরাজ্য ভ্রমণের অন্তত ১৪ দিন আগেই ভ্যাকসিনের দুই ডোজ সম্পন্ন করতে হবে।

তবে ভ্রমণকারীরা ভ্রমণের আগে তাদের একবার পিসিআর টেস্ট করতে হবে এবং যুক্তরাজ্যে পৌঁছানোর পর দ্বিতীয়বারের মতো আরও একবার পিসিআর টেস্ট করতে হবে। তবে ১৮ বছরের কম বয়সীদের আইসোলেশনে থাকতে হবে না এবং বয়সের ওপর নির্ভর করে অনেককেই টেস্টও করাতে হবে না।

যুক্তরাজ্যে গত কয়েকদিনে সংক্রমণ কিছুটা কমতে শুরু করায় ভ্রমণকারীদের ওপর বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করা হচ্ছে। এক সপ্তাহ আগেও দেশটিতে প্রতিদিন ৪৪ হাজারের ওপর সংক্রমন লক্ষ্য করা গেছে। কিন্তু গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ২৭ হাজার ৭৩৪ জন। অর্থাৎ সংক্রমণ অনেকটাই কমেছে।

তবে ফ্রান্সের জন্য এখনও কঠোর বিধিনিষেধ থাকছেই। ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নেয়ার পরও এই দেশ থেকে যুক্তরাজ্যে ভ্রমণ করতে হলে অবশ্যই কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্যাকসিন নেয়া লোকজনকে আবারও মাস্কেই ফিরতে হচ্ছে। করোনার উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় ভ্যাকসিন নেয়া লোকজনকে পুনরায় মাস্ক পরার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণের গতি আবারও বেড়ে গেছে। সে কারণে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। এক সংবাদ সম্মেলনে পুনরায় মাস্ক পরার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানান যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজেজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনসনের পরিচালক রোচেল ওয়ালেনস্কি।

এর এক দেশটির শীর্ষ সংক্রামক রোগের বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি মন্তব্য করেছিলেন যে, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র ভুল পথে রয়েছে। ভ্যাকসিন নেননি এমন লোকজনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এমন মন্তব্য করেছেন তিনি। ফাউসি জানিয়েছেন, যেসব এলাকায় ভ্যাকসিন গ্রহণের হার কম সেখানে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে সংক্রমণ দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে।

টিটিএন/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]