টুইটারকে একহাত নিলেন রাহুল গান্ধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১১ পিএম, ১৩ আগস্ট ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

এক সপ্তাহ আগে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থগিত করেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। এরপর স্থগিত করা হয় দলসহ আরও বেশ কয়েকজনের অ্যাকাউন্ট। এবার টুইটারকে উল্টো হুঁশিয়ার করলেন রাহুল। বললেন, এটি গণতন্ত্রের উপর হামলা, ভারতীয় রাজনীতির সংজ্ঞা নির্ধারণ করছে টুইটার। বিবিসির খবরে জানা যায় এ তথ্য।

কংগ্রেসের অভিযোগ, বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের হয়ে কাজ করছে টুইটার।

সম্প্রতি ভারতে ৯ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা ঘটে। রাহুল গান্ধীর টুইটার অ্যাকাউন্টে ওই শিশুর বাবা-মায়ের ছবি পোস্ট করা হয়।

এ ঘটনার পরপরই রাহুল গান্ধীর অ্যাকাউন্ট স্থগিত করে টুইটার কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, এই ছবিটি প্রকাশ করার মাধ্যমে তাদের সহিংসতা রোধে যে গোপন নীতি রয়েছে তা ভঙ্গ করা হয়েছে। আর সে কারণে এমন সিদ্ধান্ত।

শুক্রবার এক ভিডিওবার্তায় রাহুল গান্ধী জানান, তার দুই কোটির কাছাকাছি ফলোয়ার রয়েছে। তাদের মতামত পেতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। টুইটারের নিরপেক্ষ প্ল্যাটফর্মের নীতি এতে খর্ব হচ্ছে। বিনিয়োগকারীদের জন্য এটা ভয়ঙ্কর বিষয়।

তিনি আরও বলেন, একটি সংস্থা ব্যবসা করতে আমাদের দেশে রাজনীতির সংজ্ঞা নির্ধারণ করে দেবে, একজন রাজনীতিবিদ হয়ে আমি এটা পছন্দ করছি না। এটা আমাদের দেশের গণতান্ত্রিক কাঠামোর উপর আঘাত। এটা শুধু রাহুল গান্ধীর উপর হামলা বা রাহুল গান্ধীকে চুপ করানোর বিষয় নয়।

সম্প্রতি ৯ বছর বয়সী দলিত সম্প্রদায়ের এক শিশুকে ধর্ষণের পুড়িয়ে হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু হয় দিল্লিতে। এসময় রাহুল গান্ধীর তার পরিবারের লোকজনদের দেখতে যান। তার বাবা-মায়ের ছবি পোস্ট করেন রাহুল।

ভারতের শিশু সুরক্ষাবিষয়ক কমিটি বিষয়টি টুইটারকে ছবিটি সরানোর অনুরোধ জানায়। রাহুল গান্ধী ছবিটি সরানোর বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেন। এরপর টুইটার তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়।

এসএনআর/এএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]