মহাকাশ ভ্রমণ শেষে ফিরলেন ৪ পর্যটক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৫ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

মহাকাশে প্রথমবারের মতো ভ্রমণ করে নতুন মাইলফলক স্পর্শ করলেন চার পর্যটক। কক্ষপথে তিন দিনের ভ্রমণ শেষে শনিবার নিরাপদে ফিরেছেন তারা। সাধারণ পর্যটক হিসেবে মহাকাশ ও পৃথিবীর কক্ষপথে ভ্রমণ এবারই প্রথম। খবর বিবিসির।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) আটলান্টিক মহাসাগরে স্পেসএক্স-এর ক্যাপুসলে করে অতরণ করেন এই চার সাধারণ পর্যটক। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে গত বুধবার ৪ জনকে নিয়ে কক্ষপথের উদ্দেশে রওনা হয় স্পেসএক্সের ফ্যালকন নাইন রকেট। এই মহাকাশ যাত্রার নাম দেওয়া হয় ‘ইন্সপিরেশন ফোর’। এটিই প্রথম পূর্ণাঙ্গ বাণিজ্যিক ফ্লাইট।

মিশনে ধনকুবের জ্যারেড আইজ্যাকম্যানের নেতৃত্বে আরও তিন সাধারণ যাত্রী অংশ নেন। তারা হলেন, সিয়ান প্রক্টর (৫১), হ্যালি আর্সেনক্স (২৯) ও ক্রিস সেমব্রক্সি (৪২)।

jagonews24

টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্সের পক্ষ থেকে মহাকাশযাত্রায় পর্যটকদের খরচের বিষয়টি জানানো হয়নি। তবে টাইম ম্যাগাজিন বলছে, চারটি আসনের টিকিটের মূল্য ২০ কোটি মার্কিন ডলার।

এই মহাকাশ ভ্রমণে চার পর্যটকের সঙ্গে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার যন্ত্র যুক্ত করা হয়। এ সময় হৃৎস্পন্দন থেকে শুরু করে তাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা হচ্ছে। মহাকাশ ভ্রমণে স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাবের বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বিজ্ঞানীরা।

২০২১ সালে ২০ জুলাই। বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস অ্যাপলো ১১-র চাঁদে অবতরণের ৫২তম বার্ষিকীকে সম্মান জানাতে এই দিনটিই মহাকাশ অভিযানের জন্য বেছে নিয়েছিলেন। এর আগে ভার্জিন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন মহাকাশ ভ্রমণে যান। তিনিই বিশ্বে প্রথমবারের মতো নিজস্ব ভার্জিন গ্যালাক্টিকের প্লেনে চড়ে গত ১০ জুলাই মহাশূন্যে যান।

এসএনআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]