স্পেনের ক্যানেরি দ্বীপপুঞ্জের আগ্নেয়গিরিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০৫ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

স্পেনের ক্যানেরি দ্বীপপুঞ্জের লা পালমা দ্বীপে একটি আগ্নেয়গিরিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ফলে আকাশের দিকে ক্রমাগতভাবে লাভা উদগিরণ হচ্ছে এবং দ্বীপের দক্ষিণের নিকটবর্তী গ্রামগুলোতে তা ছড়িয়ে পড়ছে। এরই মধ্যে কর্তৃপক্ষ উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

দেশটির সরকার জানায় রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ১৫ মিনিটের দিকে কুম্ব্রে ভিজা জাতীয় উদ্যানের কাছে এ ঘটনা ঘটে। কয়েকশ মিটার লম্বা ও দশ মিটার চওড়া লাভার স্রোত রাস্তা অতিক্রম করে ঘর-বাড়িতে প্রবেশ করছে।

ক্যানেরি দ্বীপগুলোর মধ্যে সব চেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরির মধ্যে এটি অন্যতম। এখানে এক সপ্তাহ কম্পনের পর এ অগ্নুৎপাতের ঘটনা ঘটে। হতাহতের ঘটনা এড়াতে আশপাশের এলাকা থেকে হাজার হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, অন্ধকার নেমে আসার সঙ্গে সঙ্গে লাল লাভা আকাশের দিকে কয়েকশ মিটার উপরে উঠছে। এসময় ধোঁয়ায় চারদিক অন্ধকার হয়ে যায়। গলিত লাভা পাহাড় গড়িয়ে বন ও কৃষিজমির দিকে ছড়িয়ে পড়ছে।

jagonews24

ছবি: সংগৃহীত

স্থানীয় বাসিন্দা ইসাবেলা ফুয়েন্টিস (৫৫) স্পানিশ টেলিভিশনে এক সাক্ষাতকারে জানান, আগ্নেয়গিরির হঠাৎ বিস্ফোরণে আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। সাংবাদিকদের জন্য এটি দর্শনীয় হলেও আমাদের জন্য অনেক মর্মান্তিক। আমার কিছু আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতেও লাভা ছড়িয়ে পড়েছে।

ক্যানেরি দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট অ্যাঞ্জেলা ভিক্টর তোরেস রোববার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ৫০ হাজার মানুষকে ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

তিনি বলেন, আরও অনেক মানুষকে উদ্ধারের প্রয়োজন হতে পারে। যেহেতু লাভা উপকূলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে তাই ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন জায়গাটিতে প্রায় ১৭-২০ মিলিয়ন ঘনমিটার লাভা রয়েছে।

আগ্নেয়গিরিটিতে সর্বশেষ অগ্নুৎপাতের ঘটনা ঘটে ১৯৭১ সালে।

এমএসএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]