খেলার সুযোগ না পেয়ে বিজেপি ছেড়েছি: বাবুল সুপ্রিয়

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

পশ্চিমবঙ্গ সংবাদদাতা

মোদীর দলের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) মমতার দলে যোগ দিয়েছেন সংসদ সদস্য তথা জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বাবুল সুপ্রিয়। ওইদিন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জির নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছিলেন তিনি। তবে কেন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান সে বিষয়ে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন বাবুল।

শুরুতেই বাবুল ধন্যবাদ জানান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ও সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জিকে। এরপর তিনি বলেন, আমাকে খেলার সুযোগ দিয়েছে তাই তৃণমূলে আসা। খেলার সুযোগ না পেয়ে আমি বিজেপি ছেড়েছি। আমি সবসময় প্রথম একাদশে থাকতে চাই। সেই কারণে আমি বলবো, আমায় প্রথম একাদশে রাখার জন্য দিদি ও অভিষেক ব্যানার্জিকে ধন্যবাদ জানাই।

২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতার টালিগঞ্জ কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন বাবুল। কিন্তু তৃণমূল প্রার্থী অরূপ বিশ্বাসের কাছে প্রায় ৫০ হাজার ভোটে পরাজিত হয়েছিলেন। সম্প্রতি মোদী সরকারের নির্দেশে প্রতিমন্ত্রিত্ব হারানোর পর রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন বাবুল। সে সময় তিনি জানিয়েছিলেন, অন্য কোনো দলে যোগ দেবেন না। তবে মাত্র তিন-চার দিনের আলাপ-আলোচনায় তৃণমূলে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়।

মোদীর মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়লেও দিদির মন্ত্রিসভায় বড়সড় পদ পেতে চলেছেন বাবুল। কেন্দ্রীয় সরকার তার ‘জেড সিকিউরিটি’ বাতিল করে দিলেও মমতা সরকারের পক্ষ থেকে ‘ওয়াই সিকিউরিটি’ পেয়েছেন তিনি। এদিকে একটি সূত্র জানাচ্ছে, রাজ্যের কোনো মন্ত্রির পদ বা রাজ্যসভার সংসদ সদস্য পদ পেতে চলেছেন বাবুল।

অন্যদিকে, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুর কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপ-নির্বাচন। ওই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী মমতা ব্যানার্জি। এই নির্বাচনে তিনি কি মমতার হয়ে বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে প্রচার করবেন? উত্তরে বাবুল বলেছেন, প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল লড়াকু মেয়ে। ওকে আমি ভালো করে চিনি। তাই দলকে অনুরোধ করবো প্রচারের নামে আমাকে বিড়ম্বনায় যেন না ফেলা হয়। প্রসঙ্গত, বাবুলের হাত ধরেই প্রিয়াঙ্কার বিজেপিতে আসা।

এরপরই তিনি বলেন, মমতা ব্যানার্জির জন্য বাবুল সুপ্রিয়ের প্রচারের কোনো প্রয়োজন নেই। মমতার জয় নিশ্চিত।

বিজেপির প্রার্থী হয়ে আসানসোল থেকে দুইবার এমপি হয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। তার এই দলবদলে আসানসোলবাসীর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করছেনে বলে বিজেপি অভিযোগ করেছে। উত্তরে বাবুল বলেছেন, অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই, আমি একমাস আগেও বিজেপির কর্মী ছিলাম, এখন তৃণমূলের। আমার মনে হয় বিজেপিকে নিয়ে ঠিক কী কী সমস্যা ছিল, তা আমি স্পষ্ট করে আগেও বলেছি। আমি আসানসোলের এমপি পদও ছেড়ে দেবো। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) স্পিকারের সঙ্গে দেখা হলে এমপি পদ ছাড়বো। এখন অনেকেই আমার সম্পর্কে অনেক কথা বলবেন। তার উত্তর দেবো না।

‘আমি আসানসোলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছি, না সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি তা সময় বলবে। আমি আসানসোলের হয়ে অনেক কাজ আগেও করেছি, এখনো করবো। আমাকে এখন তৃণমূলের হয়ে অনেক কাজ করতে হবে। শিখতে হবে। আমি দলকে বলেছি, আমাকে সাহায্য করতে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও অনেক প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বিজেপিত্যাগী বাবুল। তবে এ বিষয়ে তৎপর বিজেপিও। বাবুলের দলবদল নিয়ে তারাও পরপর সংবাদ সম্মেলন করছে। তাদের বক্তব্য, ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে ফের একক ক্ষমতায় দেশের মন্ত্রিসভা গঠন করবেন নরেন্দ্র মোদী। ফলে বাবুলের না থাকাটা কোনো ফ্যাক্টর না দলের জন্য। তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বাবুলের দলবদলে মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের কিছুটা হলেও মনোবল ভাঙলো। যার প্রভাব পড়তে পারে আগামী লোকসভা নির্বাচনে।

এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]