বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে থানায় আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ দিলো তৃণমূল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক ত্রিপুরা
প্রকাশিত: ০৯:১১ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব/ফাইল ছবি

ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের বিরুদ্ধে আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ এনেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই অভিযোগে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজ্যের রাজধানীর পূর্ব আগরতলা থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রামনগরের বাসিন্দা মামুন খান এই অভিযোগ করেন। অভিযোগের কপিটি তিনি জেলা প্রশাসকের কাছেও দিয়েছেন।

অভিযোগে মামুন উল্লেখ করেন, করোনা মহামারি ও দুর্গাপূজার কথা মাথায় রেখে গত ২০ সেপ্টেম্বর পূর্ব ও পশ্চিম আগরতলা থানা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। আগামী ৪ নভেম্বর পর্যন্ত জারি থাকা এই বিধিনিষেধের আওতায় ওই এলাকায় সব ধরনের রাজনৈতিক সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়।

নিষেধাজ্ঞায় বলা আছে, এই সময়ের মধ্যে ত্রিপুরার পূর্ব এবং পশ্চিম আগরতলা থানা এলাকায় একসঙ্গে পাঁচ জনের বেশি লোকের জমায়েত করা যাবে না৷ তা সত্ত্বেও গত ২১ সেপ্টেম্বর গোমতি জেলার উদয়পুরের কাকরাবনে একটি রাজনৈতিক সভায় বক্তৃতা দিতে দেখা যায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে। এছাড়া ত্রিপুরা সরকারের উদ্যোগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর রবীন্দ্র শতবার্ষিকী হলে আয়ুষ্মান ভারতের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন বিপ্লব দেবসহ সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

তৃণমূল নেতারা বলছেন, ভিডিও রেকর্ডিং এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ছবি থেকে স্পষ্ট, দু’টি অনুষ্ঠানেই করোনার বিধিনিষেধ ভঙ্গ করে ৫০০-এর বেশি মানুষের জমায়েত হয়েছিল।

তৃণমূলের অভিযোগে বলা হয়েছে, করোনা সংক্রমণের অজুহাতে ১৪৪ ধারা জারি করে অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সমাবেশ আটকালেও বিজেপিকে সেই অনুমতি দিচ্ছে ত্রিপুরা সরকার। সরকারি এই নির্দেশিকাকে মানুষের সাংবিধানিক এবং গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ বলে মনে করছে তৃণমূল৷ অবিলম্বে এই নির্দেশিকা প্রত্যাহারের দাবিও জানানো হয়েছে।

আগরতলা থানায় অভিযোগকারী মামুন খান বলেন, ‘বিরোধীদের বেলায় যতো নিষেধাজ্ঞা। শাসক দলের জন্য কোনো বিধিনিষেধ নেই। এ আবার কেমনতর আইন!’

তিনি বলেন, গত ১৫ সেপ্টেম্বর ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানীতে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জির একটি পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পুলিশ তাতে অনুমতি দেয়নি। পরে দলের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ২২ সেপ্টেম্বর পদযাত্রার আয়োজন করা হবে। কিন্তু তখনো পুলিশের অনুমতি না মেলায় বাধ্য হয়ে তৃণমূল কংগ্রেস আদালতের দ্বারস্ত হয়। তবে এরইমধ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। তখন আদালতও সেই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পদযাত্রার অনুমতি দেননি। কিন্তু এই ১৪৪ ধারা অমান্য করেই শাসকদলের পক্ষ থেকে একের পর এক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে থানায় অভিযোগ জানালো তৃণমূল।

এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]