আফগানিস্তানের ব্যাংকিং খাত ধসে পড়ার শঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০৭ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানের ব্যাংকিং ব্যবস্থা ধসে পড়ার দ্বারপ্রান্তে চলে এসেছে বলে জানিয়েছেন ইসলামিক ব্যাংক অব আফগানিস্তানের প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মোসা কালিম আল-ফালাহি। তিনি বলেছেন, তালেবান ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই গ্রাহকরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। ফলে দেশটির আর্থিক খাতগুলো তীব্র অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেন।

দুবাই থেকে এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে গ্রাহকরা টাকা তুলে নিচ্ছে। শুধু টাকাই তোলা হচ্ছে কিন্তু অধিকাংশ ব্যাংক তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে না অথবা সেবা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

যদিও তালেবান ক্ষমতা গ্রহণের আগে থেকেই আফগানিস্তানের অর্থনীতি নড়বড়ে অবস্থায় ছিল। বিশ্ব ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, দেশটি বৈদেশিক সাহায্যের ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল এবং জিডিপির প্রায় ৪০ শতাংশ আসে আন্তর্জাতিক সাহায্য থেকে।

কিন্তু তালেবান ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলো আন্তর্জাতিক তহবিল বন্ধ করে দেয়। এছাড়া বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের কাছে আফগানিস্তানের যে অর্থ ছিল তাও জব্দ করে রাখা হয়েছে।

আল ফালাহি বলেন, এসব কারণে তালেবান সাহায্য পাওয়ার জন্য অন্যান্য উৎস থেকে অর্থ খুঁজতে শুরু করেছে। তারা চীন এবং রাশিয়াসহ অন্য অনেক দেশের দিকে তাকিয়ে আছে। মনে হচ্ছে সংলাপ চালিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে তারা কোনো না কোনো সময় সফল হবে। এরইমধ্যে আফগানিস্তান পুনর্গঠনে সাহায্য করা এবং তালেবানের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছার কথা বলেছে চীন।

তিনি আরও বলেন, তালেবান কিছু সময়ের জন্য নারীদের কাজের অনুমতি না দিলেও তারা এখন ধীরে ধীরে ব্যাংকে আসতে শুরু করেছে। যদিও প্রথম দিকে তারা অনেক ভয়ে ছিলেন।

এমএসএম/টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]