আজ অথবা কাল তালেবানকে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিতেই হবে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৫ পিএম, ০৩ অক্টোবর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আজ অথবা কাল যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে অবশ্যই তালেবানকে স্বীকৃতি দিতে হবে। বর্তমানে আফগানিস্তান শাসন করছে তালেবানের নতুন সরকার। কিন্তু এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বের কোনও দেশই তালেবানকে স্বীকৃতি দেয়নি। যদিও ইতোমধ্যেই চীন তালেবানের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। এছাড়া পাকিস্তান এবং রাশিয়াও তালেবানকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় প্রচারমাধ্যম টার্কিস রেডিও অ্যান্ড টেলিভিশন কর্পোরেশনকে (টিআরটি) দেওয়া এক সাক্ষাতকারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান তালেবানের দখলের যাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র হতবাক হয়ে গেছে। তারা কিছুটা বিভ্রান্তির মধ্যে আছে।

তিনি বলেন, মার্কিন জনগণ একটি বলির পাঠা খুঁজছে এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অন্যায়ভাবে লক্ষ্যবস্তু করা হচ্ছে।

সমালোচকরা বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে বাইডেনের সিদ্ধান্তের পর দেশটিতে পশ্চিমা সমর্থিত সরকার ভেঙে পড়ে। তীব্র চাপ সত্ত্বেও, যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘতম যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে সৈন্য প্রত্যাহারে ৩১ আগস্টকে সময়সীমা নির্ধারণ করেন বাইডেন।

২০২০ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময়ে তালেবানের সঙ্গে হওয়া চুক্তির অংশ হিসেবে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে যুক্তরাষ্ট্র। কাতারের রাজধানী দোহায় ওই চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছিল। সে সময় তালেবানের সঙ্গে চুক্তি করা হয় যে, তাদের দেশের মাটিতে বসে যেন আল কায়েদার মতো সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো যুক্তরাষ্ট্র এবং এর মিত্র দেশগুলোর বিরুদ্ধে হামলা চালাতে না পারে।

কিন্তু আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার এবং নাটকীয়ভাবে তালেবানের ক্ষমতা গ্রহণের পর যুক্তরাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সংস্থাগুলো দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ৯শ কোটি ডলার জব্দ করে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর থেকেই আফগানিস্তানের আর্থিক সংকট আরও তীব্র আকার ধারণ করে।

ইমরান খান জোর দিয়ে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি আফগানিস্তানের রিজার্ভ ব্যবহারের অনুমতি না দেয় তবে দেশটি ভয়াবহ বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির মধ্যে পড়বে। তাই যুক্তরাষ্ট্রকে এই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রতিবেশী আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক এবং মানবিক সংকটের প্রভাব পাকিস্তানের ওপরও পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর মধ্যেই প্রায় ৩৫ লাখ আফগান শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে পাকিস্তান।

টিটিএন/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]