মদপানের অভিযোগে নাইজেরিয়ায় শিক্ষার্থীদের বেত্রাঘাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৪৮ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০২১

মদপানের অভিযোগে নাইজেরিয়ার একটি মাদরাসায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ওই প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন যুবক এক কিশোরীকে লাঠি দিয়ে আঘাত করছেন। এ সময় ওই কিশোরীর হিজাব খুলে যায়। অন্য একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, এক কিশোরকে লাঠি দিয়ে পিটানো হচ্ছে। এ সময় সে চিৎকার করে এবং ব্যথায় কাঁদতে থাকে।

শিক্ষকদের নির্দেশে মাদরাসার অন্য ছাত্ররা তাদের এ শাস্তি দিয়েছে। সোমবার (১১ অক্টোবর) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়।

এই ঘটনার আগে মাদরাসার কিছু শিক্ষার্থী মদপান করেছে বলে অভিযোগ ওঠে। যদিও শিক্ষার্থীরা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাদের দাবি, জন্মদিনের একটি পার্টিতে তারা দই খেয়েছিল।

শিক্ষকরা বলেছেন, শিক্ষার্থীদের বাবা-মায়ের অনুমতি নিয়েই তাদের শাস্তি দেওয়া হয়েছে। ইসলামিক আইন মেনে তাদের এ শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়। এক কিশোরীর বাবা জানিয়েছেন, তিনি শাস্তির অনুমতি দিয়েছেন। ঘটনাটি জানিয়ে মাদরাসা কর্তৃপক্ষকে যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা করতে বলেছিলেন তিনি। কিন্তু ভিডিওতে তিনি শাস্তির এমন দৃশ্য দেখে কষ্ট পেয়েছেন।

ভিডিওটি দ্রুতই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। অধিকাংশ নাইজেরিয়াবাসী এমন ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

নাইজেরিয়ার স্থানীয় সরকার মাদরাসা পরিদর্শন করেছে এবং এই ঘটনার সমালোচনা করেছে। প্রকৃত ঘটনা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এমএসএম/টিটিএন/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]