‘দ্রুত বিখ্যাত হতে’ ছেলে সেজে কিশোরীর প্রতারণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৬ এএম, ১৪ অক্টোবর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

চীনে ছেলেদের একটি গানের ব্যান্ডে যোগ দিতে মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছিলেন ১৩ বছরের এক কিশোরী। কিন্তু সত্য কি আর লুকিয়ে রাখা যায়! ব্যান্ড কর্তৃপক্ষের চোখ ফাঁকি দিতে পারলেও মেয়েটি ধরা পড়ে গেছেন নেটিজেনদের কাছে। ফলে বাধ্য হয়েই ক্ষমা চাইতে হয়েছে তাকে।

ফু জিয়াইউয়ান নামে ওই কিশোরী স্বীকার করেছেন, তিনি নারী না পুরুষ- জনপ্রিয় একটি ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের এ প্রশ্নের জবাবে মিথ্যা বলেছিলেন। কারণ, তার ভাষায় তিনি ‘অল্পবয়সী ও অনভিজ্ঞ’।

জানা যায়, ফু জিয়াইউয়ান ওয়াইজিএন ইয়ুথ ক্লাব নামে ছেলেদের একটি ব্যান্ডের সদস্য হিসেবে যোগ দেন। তিনি ব্যান্ডটির আনুষ্ঠানিক সদস্য ছিলেন না। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার প্রশিক্ষণের ভিডিও দেখতে পেতেন ভক্তরা। তেমনই একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী অনলাইনে ফাঁস করে দেন যে, ফু আসলে একজন মেয়ে। এরপরই চাপে পড়ে এই প্রতারণার কথা স্বীকার করতে বাধ্য হন তিনি। পাশাপাশি ফু ঘোষণা দিয়েছেন, তিনি বিনোদন জগত থেকেই চিরতরে বিদায় নিচ্ছেন।

jagonews24

ছবি: সংগৃহীত

চলতি সপ্তাহে এক বিবৃতিতে ফু জিয়াইউয়ান বলেন, যারা আমাকে বিশ্বাস করেছিলেন, তাদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করছি। আমি কথা দিচ্ছি, বিনোদন জগতে আর আসবো না। ভবিষ্যতে কোনো ধরনের ভিডিও প্ল্যাটফর্মেই আমাকে আর দেখা যাবে না।

ছেলেদের ব্যান্ডগুলো কেন লোভনীয়?
ওয়াইজিএন ইয়ুথ ক্লাব ব্যান্ডের প্রশিক্ষণ শিবিরগুলো চীনে খুবই জনপ্রিয় এবং লোভনীয়। কারণ চীনা বাবা-মায়েরা মনে করেন, সেখানে প্রশিক্ষণ পেলে তাদের সন্তানরা দ্রুত ধনী ও বিখ্যাত হওয়ার সুযোগ পাবে।

ওয়াইজিএন ইয়ুথ ক্লাব ব্যান্ড তাদের দলে শুধু ১১ থেকে ১৩ বছর বয়সী ছেলেদেরই নিয়ে থাকে। এই তরুণ ব্যান্ডে কিশোরদের চ্যালেঞ্জিং কর্মসূচির মাধ্যমে সঙ্গীত পরিবেশন ও নাচ শেখানো হয়। অর্থাৎ, ভবিষ্যতে তারকা হয়ে ওঠার নানা কলাকৌশল শেখানো হয় তাদের।

jagonews24

ছবি: সংগৃহীত

ক্লাবটি জানিয়েছে, মহামারির কারণে চলতি বছর শিল্পীদের অডিশন নেওয়া হয়েছিল অনলাইনে। সে জন্যই এই ভুল হয়েছে। ভবিষ্যতে আরও কঠোরভাবে নিয়মনীতি অনুসরণ করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা।

তবে অনেক ভক্তই ফু জিয়াইউয়ানের পক্ষে কথা বলেছেন। কেউ কেউ বলেছেন, এটি বড় কোনো ঘটনা নয়। অনেকেই আবার ঠাট্টা করে চীনা লোকগাঁথার নায়িকা মুলানের সঙ্গে তাকে তুলনা করেছেন।

চীনের প্রাচীন লোকগাঁথা অনুসারে, মুলান ছিলেন এক তরুণী। কিন্তু নিজের পরিবার ও দেশকে রক্ষা করার জন্য তিনি পুরুষের ছদ্মবেশে শত্রুদের বিপক্ষে যুদ্ধ করেছিলেন। এই কাহিনী নিয়ে ডিজনি সিনেমা বানানোর পর চরিত্রটি এখন বিশ্বে অনেকের কাছেই পরিচিত।

একজন আবার জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্ম উইবোতে লিখেছেন, আজকাল এ ধরনের তারকা দলের সদস্যদের দেখে চেনার উপায় থাকে না- কে পুরুষ, কে নারী। কাজেই ওই কিশোরীকেও ব্যান্ডে যোগ দিতে দেওয়া হোক।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

কেএএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]