ভারতে দশেরা শোভাযাত্রায় বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কা, হতাহত অনেক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:১২ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের ছত্তিশগড়ে দশেরার শোভাযাত্রায় ঢুকে কয়েকজনকে পিষে দিয়েছে একটি দ্রুতগতির গাড়ি। এতে এখন পর্যন্ত একজন নিহত ও ২০ জনের বেশি আহত হওয়ার খবর জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।

নিহত ওই ব্যক্তির নাম গৌরব আগারওয়াল (২১)। তিনি জশপুরের পথলগাঁও এলাকার বাসিন্দা বলে জানা যায়।

এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, ছত্তিশগড়ের জশপুরের পথলগাঁও এলাকায় ওই শোভাযাত্রা বের হয়। হঠাৎ একটি গাড়ি শোভাযাত্রার মাঝ বরাবর ঢুকে পড়ে। গাড়ির ধাক্কায় চারদিকে ছিটকে পড়ে মিছিলে অংশ নেওয়া মানুষজন। এসময় মাটিতে পড়ে থাকা কয়েকজনকে পিষে দিয়ে চলে যায় গাড়িটি।

স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, এ ঘটনায় গুরুতর আহত কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকিদের চিকিৎসা চলছে।

স্থানীয় কিছু সংবাদমাধ্যমে চারজন মারা যাওয়ার দাবি করেছে। তবে বেশিরভাগ সূত্রই একজন মারা গেছেন বলে জানিয়েছে।

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ওই গাড়িতে গাঁজা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, আগেই এমন খবর পাওয়া গিয়েছিল। জনবহুল রাস্তায় গাড়িটি ঢুকে পড়ায় স্থানীয়রা সেটির দিকে ছুটে যান। এসময় অপরাধীরা পালাতে গিয়ে দ্রুতগতিতে গাড়ি চালিয়ে দেয় শোভাযাত্রার ভেতর দিয়েই। সামনে ভিড় থাকায় গাড়ির ধাক্কায় রাস্তায় ছিটকে পড়েন কয়েকজন। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

এরপর উত্তেজিত জনতা গাড়িটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। স্থানীয় থানা ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়েও তারা বিক্ষোভ করেন। এরই মধ্যে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার ওই দুই ব্যক্তির নাম বাবলু বিশ্বকর্মা (২১) ও শিশুপাল সাহু (২৬)। তারা দুজনই মধ্য প্রদেশের বাসিন্দা।

এদিকে, এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল। তিনি বলেন, জশপুরের ঘটনাটি খুবই হৃদয়বিদারক। এর মূলহোতাদের এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। এতে প্রাথমিকভাবে দোষী সাব্যস্ত পুলিশের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। দোষী কাউকে এ ব্যাপারে ছাড় দেওয়া হবে না।

ছত্তিশগড়ের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী রামান সিং এই ঘটনায় নিহতের পরিবারকে ৫০ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ ও জশপুরের পুলিশ সুপারের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

এআরএ/কেএএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]