মার্কিন মিশনারি দল অপহৃত, প্রায় ২ কোটি ডলার মুক্তিপণ দাবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৫৯ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

হাইতিতে ১৭ মার্কিন খ্রিষ্টান মিশনারি এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণের পর একটি গ্যাং প্রায় দুই কোটি ডলার মুক্তিপণ দাবি করেছে। অপহরণের শিকার প্রত্যেকের জন্য মুক্তিপণ হিসেবে দিতে হবে ১০ লাখ ডলার। হাইতির আইনমন্ত্রী ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে এ তথ্য জানান।

হাইতিতে লোকজনকে অপহরণের পর মুক্তিপণ দাবি ঘটনা প্রায় ঘটছে। বেশ কিছু কুখ্যাত গ্যাং এর সঙ্গে জড়িত। এপ্রিলে একটি গ্যাং ক্যাথলিক গির্জার একটি দলকে অপহণ করে। যদিও পরবর্তীতে তাদের সবাইকে মুক্তি দেওয়া হয়। তবে এজন্য তাদের মুক্তিপণ দিতে হয়েছিল কিনা তা স্পষ্ট নয়।

এর আগে হাইতিতে ১৭ মার্কিন খ্রিস্টান মিশনারি এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ করা হয়। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন শিশুও রয়েছে। রাজধানী পোর্ট-অব-প্রিন্স থেকে গ্যাং সদস্যরা ওই মিশনারি এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ করে।

পোর্ট-অব-প্রিন্সের নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, শনিবার একটি বাস থেকে ওই মিশনারি এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ করা হয়।

এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, অপহরণের আগে একটি এতিমখানা থেকে অন্য জায়গায় চলে যাচ্ছিলেন ওই মিশনারিরা। তাদের দলের কয়েকজন সদস্যকে বিমানবন্দরে নামিয়ে দেওয়ার জন্য সেদিকে যাচ্ছিল মিশনারিদের বহনকারী বাসটি।

একটি নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে নিউজ এজেন্সি এএফপি জানিয়েছে, সশস্ত্র একটি গ্যাংয়ের সদস্যরা ওই মিশনারি এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ করেছে। এই অপরাধ গোষ্ঠীর সদস্যরা পোর্ট-অব-প্রিন্স এবং ডোমিনিকান রিপাবলিকের সীমান্তের মধ্যবর্তী এলাকায় কয়েক মাস ধরেই চুরি এবং অপহরণের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ক্রিশ্চিয়ান এইড মিনিস্ট্রিস বিভিন্ন ধর্মীয় মিশনের কাছে একটি বার্তা পাঠিয়েছে যে, অপহরণ হওয়া মিশনারি দলটি হাইতিতে একটি এতিমখানা তৈরি করছিলেন।

এমএসএম/টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]