সেই শিশুর জন্য সাড়ে ৭ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৫ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

অস্ট্রেলিয়ায় পরিবারের সঙ্গে সৈকতে অবকাশ যাপন করতে যেয়ে হারিয়ে যায় চার বছরের শিশু ক্লেও স্মিথ। মা এলাই স্মিথের সঙ্গে ক্যাম্পের একটি তাঁবুতে ঘুমিয়ে ছিল সে। কিন্তু পরের দিন সকালে তাকে তাঁবুর মধ্যে দেখতে না পেয়ে হতবাক হয়ে যায় তার মা। সেই থেকেই মেয়েটির খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এ ঘটনায় অস্ট্রেলিয়ান পুলিশ শিশুটির সন্ধানে সাড়ে সাত লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার হিসেবে ঘোষণা করেছে। তারা ধারণা করছে শিশুটি অপহরণের শিকার হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ কমিশনার কর্নেল ব্ল্যাঞ্চ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ক্লেও স্মিথের সঙ্গে কী হয়েছে তা আমাদের সম্প্রদায়ের কেউ হয়তো জানে। এরই মধ্যে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

তদন্তকারী কর্মকর্তারা জানান, শিশুটি তার নিজের ইচ্ছায় কোথাও যায়নি। কারণ তাঁবুটি এমন উচ্চতায় খোলা ছিল যা তার পক্ষে সম্ভব নয়। আমরা তাকে জীবিত উদ্ধারের চেষ্টা করছি কিন্তু তার নিরাপত্তা নিয়ে আমরা শঙ্কিত।

এর আগে শনিবার অস্ট্রেলিয়ার একটি সমুদ্র সৈকতের ক্যাম্প থেকে চার বছরের একটি শিশু নিখোঁজ হয়। অবকাশ যাপনের জন্য সেখানে গিয়েছিল শিশুটির পরিবার। ঘটনার পর পরই পুলিশ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে।

ক্লেও স্মিথ নামের ওই শিশুকে সর্বশেষ শনিবার সকালে পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার কোওবা ব্লোহোলস ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে তার পরিবারের সঙ্গে তাঁবুতে ঘুমাতে দেখা যায়। পরের দিন খুব সকালে তার মা স্মিথ ঘুম থেকে উঠে মেয়েকে দেখতে না পেয়ে হতবাক হয়ে যান। এ সময় সে তাঁবুও খোলা দেখতে পান। এই ঘটনার পর থেকেই শিশুটিকে উদ্ধারে ব্যাপক তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

এলি স্মিথ স্থানীয় গণমাধ্যমে বলেন, গত কয়েক দিন যাবত ভয়ংকর সময় পাড় করছি। আমরা কেউ ঘুমাতে পারছি না। আমরা শুধু আমাদের মেয়েকে চাই। দুর্ভাগ্যজনক বিষয় হলো আমরা তাকে উদ্ধারের জন্য কিছুই করতে পারছি না। পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। আমরা খুবই আশাহত।

মঙ্গলবার সকালে আঞ্চলিক পরিদর্শক জন মুন্ডে বলেন, শিশুটিকে অপহরণের পর ওই এলাকা থেকে সরিয়ে ফেলা হতে পারে। তদন্তকারীরা সে সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিতে পারেন না।

তিনি বলেন, ঘটনার সময় ওই ক্যাম্প সাইটে অনেক লোক ছিল। পুলিশ সেখানে থাকা সবাইকে নজরদারিতে রেখেছে। অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ছুটি কাটাতে ওই দূরবর্তী এলাকায় ভ্রমণে যায় শিশুটির পরিবার।

এমএসএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]