ফিলিস্তিনের ৬ মানবাধিকার সংগঠনকে ‘সন্ত্রাসী’ তকমা ইসরায়েলের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

ফিলিস্তিনের খ্যাতনামা ছয়টি মানবাধিকার সংগঠনকে ‘সন্ত্রাসী’ সংগঠনের তকমা দিয়ে একটি সামরিক আদেশ জারি করেছে ইসরায়েল। তাদের এ পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ, জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন। খবর আল-জাজিরার।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শুক্রবার দাবি করেছে, ওই সংগঠনগুলোর সঙ্গে পপুলার ফ্রন্ট ফর দ্য লিবারেশন অব প্যালেস্টাইন (পিএফএলপি), বামপন্থি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা ও হামাসের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। আর সে জন্যই তাদের সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই মানবাধিকার সংগঠনগুলো পপুলার ফ্রন্টের পক্ষে গোপনে একটি সক্রিয় আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ক গঠন করেছে। এগুলো পিএফএলপির নেতা নিয়ন্ত্রণ করছেন, যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত
বলেও অভিযোগ আনা হয়েছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দাবি, এফএলপিকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে থাকে এই সংগঠনগুলো। ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থা থেকে তারা অর্থ পায় বলেও জানানো হয়।

পপুলার ফ্রন্ট ফর দ্য লিবারেশন অব ফিলিস্তিন হলো একটি ধর্মনিরপেক্ষ (ফিলিস্তিনি মার্কসবাদী-লেনিনবাদী এবং বিপ্লবী সমাজতান্ত্রিক) সংগঠন যা ১৯৬৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

সন্ত্রাসী আখ্যা দেওয়া সংগঠনগুলো হচ্ছে, আল-হক যেটি ১৯৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়, অ্যাডামের অধিকার গোষ্ঠী, ডিফেন্স ফর চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনাল-প্যালেস্টাইন, দ্য বিসান সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, ইউনিয়ন অব প্যালেস্টাইন উইমেনস কমিটি এবং ইউনিয়ন অব এগ্রিকালচারাল ওয়ার্ক কমিটি।

ইসরায়েলের এ পদক্ষেপকে ফিলিস্তিন নাগরিক সমাজের ওপর একটি নিরবচ্ছিন্ন আক্রমণ বলে নিন্দা করেছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

এক যৌথ বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচ সংগঠনগুলোকে সন্ত্রাসী আখ্যা দেওয়াকে বেআইনি বলে অভিহিত করেছে।

এমএসএম/টিটিএন/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]