ত্রিপুরায় তৃণমূলের প্রচারণায় হামলাকারীদের গ্রেফতারে আল্টিমেটাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

আগরতলা সংবাদদাতা

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রচারাভিযানে হামলা চালিয়েছে বিজেপি সমর্থকরা। এ অভিযোগে হামলাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশকে ১২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছে তৃণমূল। অন্যথায় কঠিন আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সেই সঙ্গে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় এক ইঞ্চি জমি না ছাড়ার।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকালে রাজ্য পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শককে (ডিআইজি) পেন ড্রাইভের মাধ্যমে হামলার ভিডিওসহ তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে আরও একবার অভিযোগ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যসভার সংসদ সদস্য সুস্মিতা দেব, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের আইন ও পুর দপ্তরের মন্ত্রী মলয় ঘটক, সাবেক সংসদ সদস্য ডা. শান্তনু সেন, প্রদেশ স্টিয়ারিং কমিটির কনভেনার সুবল ভৌমিকসহ আরও অনেকে।

অভিযোগ জানিয়ে এসে সুস্মিতা দেব বলেন, পুলিশ বলছে, আমাদের প্রচারাভিযানের না কি কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি। আমার প্রশ্ন, তাই বলে কী এভাবে হামলা চালাতে পারে কেউ? আমরা যে দাবিটা করছি, সেটা মানুষের নাগরিক সুরক্ষার অধিকার। গত কদিন আগেও রাজ্যে এসে আক্রমণের শিকার হতে হয়েছিল সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এক্ষেত্রেও আজ অব্দি কোনো ধরনের গ্রেফতারের খবর নেই। এভাবে যদি এ রাজ্যের প্রশাসন চলতে থাকে, তবে আগামী দিনে পুর এবং নগর সংস্থার যে ভোট রয়েছে তাতে আমরা কী আশা করতে পারি।

এসময় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে ডা. শান্তনু সেন বলেন, হামলাকারীরা আগে মুখ ঢেকে আক্রমণ চালালেও এখন দিবালোকে হামলা চালায়। হয়তো বিজেপি কিংবা পুলিশের মদতেই সাহস পাচ্ছে তারা। সরাসরি তারা নারীদের ওপর আক্রমণ, মোবাইল ছিনতাই, গাড়ি ভাঙচুর পর্যন্ত করছে।

তিনি আরও বলেন, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পুলিশ ১২ ঘণ্টার মধ্যে যদি দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করে, তবে তৃণমূল কংগ্রেস স্থানীয়ভাবে যে আন্দোলন গড়ে তুলবে তাতে দায়ী থাকতে হবে প্রশাসনকেই। আগামী নভেম্বরে সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেও এই বিষয়টি তোলা হবে। ছাড়া হবে না এক ইঞ্চি জমিও।

এর আগে শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে ত্রিপুরায় বিভিন্ন প্রান্তে প্রচার-প্রচারণা শুরু করেন সুস্মিতা দেব। ‘ত্রিপুরার জন্য তৃণমূল’ মমতা ব্যানার্জীর এই বার্তা ছড়িয়ে দিতে প্রচার-প্রচারণা শুরু হয়।

কিন্তু তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ত্রিপুরার আগরতলা থেকে বিভিন্ন বাজার হয়ে আমতলী এলাকায় পৌঁছলে সেখানে তাদের ওপর হামলা চালান বিজেপির সমর্থকরা।

ঘটনার পর সুস্মিতা দেব নিজেই অভিযোগ করেন। তিনি জানান, এতে তাদের বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন। পরে তাদের ভর্তি করা হয় আইজিএম হাসপাতালে।

সুস্মিতা দেব এ বিষয়ে আমতলী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পরও গ্রেফতার করা হয়নি হামলাকারী কাউকে।

জেডএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]