অনলাইনে আইফোন ১২ অর্ডার করে পেলেন ভিম বার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫৮ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

অনলাইনে পণ্য কিনে প্রতারিত হওয়ার খবর নতুন কিছু নয়। এবার সেই তালিকায় যোগ হলো আইফোন অর্ডার করে ভিম বার পাওয়ার একটি ঘটনা। সম্প্রতি ভারতের কেরালা রাজ্যের এক ব্যক্তি প্রায় ৭১ হাজার রুপি মূল্যের একটি আইফোন ১২ অর্ডার করেছিলেন। কিন্তু কয়েকদিন পর প্রত্যাশিত ফোনের প্যাকেটে তার হাতে পৌঁছায় থালা-বাসন ধোয়া ভিম বার ও একটি পাঁচ রুপির কয়েন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, গত ১২ অক্টোবর ই-কমার্স সাইট অ্যামাজনে ৭০ হাজার ৯০০ রুপি মূল্যের একটি আইফোন ১২ অর্ডার করেন নুরুল আমিন নামে এক ব্যক্তি। অ্যামাজন পে কার্ড ব্যবহার করে পুরো মূল্য পরিশোধ করেছিলেন তিনি।

এর তিন দিন পর, অর্থাৎ গত ১৫ অক্টোবর ফোনের প্যাকেট তার হাতে গিয়ে পৌঁছায়। নুরুল আমিন আগে থেকেই জানতেন, অনলাইনে কেনাকাটায় কী পরিমাণ প্রতারণা হয়ে থাকে। এ কারণে ডেলিভারিম্যানকে সামনে রেখেই প্যাকেট খোলার ভিডিও শুরু করেন তিনি।

শেষপর্যন্ত খুলে দেখা যায়, নুরুলের আশঙ্কাই সত্য। প্যাকেটের ভেতর আইফোনের বদলে ছিল একটি ভিম বার ও একটি পাঁচ রুপির কয়েন।

নুরুল সঙ্গে সঙ্গে অ্যামাজন কাস্টমার কেয়ারে ফোন করেন এবং পুলিশের কাছে অভিযোগ দেন। অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে স্থানীয় সাইবার পুলিশ টিম। তারা প্যাকেটের গায়ে থাকা আইএমইআই নাম্বার পরীক্ষা জানতে পারেন, ওই ফোনটি গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ঝাড়খণ্ডের এক ব্যক্তি ব্যবহার করছেন। অথচ নুরুল একই ফোনের অর্ডার দিয়েছিলেন অক্টোবর মাসে।

তদন্তকারী টিমের এক কর্মকর্তা বলেন, আমরা অ্যামাজন কর্তৃপক্ষ এবং তেলেঙ্গানা-ভিত্তিক বিক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। বিক্রেতা জানিয়েছেন, ওই ফোনের স্টক শেষ হয়ে গেছে এবং নুরুলের অর্থ ফেরত দেওয়া হবে।

কেরালা পুলিশ পরে এক ফেসবুক পোস্টে জানায়, গত ২২ অক্টোবর ফোনের অর্থ ফেরত পেয়েছেন নুরুল আমিন। তবে এ বিষয়ে তদন্ত এখনো চলছে।

এর আগে, গত মাসে একই রাজ্যের উত্তর পারাবুর শহরের এক যুবক ১ লাখ ১৪ হাজার রুপি দামের ল্যাপটপ অর্ডার করে ভেতরে পুরোনো পত্রিকাভর্তি প্যাকেজ পান। সৌভাগ্যবশত তিনিও পুরো অর্থ রিফান্ড পেয়েছেন।

কেএএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]