ফের ভয়ংকর রূপ নিয়েছে স্পেনের আগ্নেয়গিরি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:২৬ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

স্পেনের লা পালমা দ্বীপের আগ্নেয়গিরিটি অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন বেশি সক্রিয়। দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানান। নতুনভাবে আবার ব্যাপক লাভার উদগীরণ শুরু হয়েছে। ফলে আগে যে সব এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি এখন সেসব এলাকায়ও লাভা পৌঁছে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত পাঁচ সপ্তাহ ধরে আগ্নেয়গিরিটি থেকে অগ্নুৎপাত হচ্ছে। খবর ডেইলি মেইলের।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) ভোরে আগ্নেয়গিরিটিতে থেকে গলিত পাথরের একটি নতুন নদী বেরিয়ে আসে। ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ ভলকানোলজি ইনস্টিটিউট এটিকে একটি বিশাল লাভার ফোয়ারা হিসেবে বর্ণনা করেছে। পাহাড়ের নিচে গড়িয়ে পড়া লাভার নদীগুলো প্রায় ৩ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রশস্ত বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ইনস্টিটিউটের গবেষক পেড্রো হার্নান্দেজ পাবলিক ব্রডকাস্টার আরটিভিইকে বলেন, আমরা একটি নতুন পর্যায়ে আছি, যা অনেক বেশি তীব্র।

অগ্নুৎপাতের ফলে উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকার দ্বীপের ওপরে ছাই মেঘ দেখা গেছে। নতুনভাবে লাভা উদগীরণ হওয়ায় কী নির্দেশনা আসে সে অপেক্ষায় আছে সেখানকার বাসিন্দারা। এদিকে কর্তৃপক্ষ আরও অধিক সংখ্যক মানুষকে সরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে।

কর্তৃপক্ষের উদ্ধার তৎপরতার কারণে এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। উত্তপ্ত লাভায় এখন পর্যন্ত সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে দুই হাজারের বেশি বিল্ডিং ও নয়শ হেক্টর কৃষি জমি ধ্বংস হয়েছে। দ্বীপটির ৮৫ হাজার পাঁচশত মানুষের মধ্যে সাত হাজার পাঁচশ অন্যত্র পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

গত রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ১৫ মিনিটের দিকে স্পেনের ক্যানেরি দ্বীপপুঞ্জের লা পালমা দ্বীপে কুম্ব্রে ভিজা জাতীয় উদ্যানের কাছে একটি আগ্নেয়গিরিতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ক্যানেরি দ্বীপগুলোর মধ্যে সব চেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরির মধ্যে এটি অন্যতম। এখানে এক সপ্তাহ কম্পনের পর ওই অগ্নুৎপাতের ঘটনা ঘটে।

এমএসএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]