শিগগির সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে না যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৩৬ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১

মধ্য প্রাচ্যের যুদ্ধ-বিধ্বস্ত দেশ সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় নয়শ সেনা সদস্য রয়েছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় অবস্থান করা এসব সেনা প্রত্যাহার করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আগস্টে আফগানিস্তান থেকে সব সেনা প্রত্যাহার করে নেয় দেশটি। এরপরই সিরিয়া থেকেও সেনা প্রত্যাহারের জল্পনা শুরু হয়। কিন্তু সিরিয়া নিয়ে এমন পরিকল্পনা আপাতত নেই বলে বাইডেন প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন। খবর আল-জাজিরার।

সাম্প্রতিক সময়ে সিরিয়ার পর্যবেক্ষকরা ধারণা প্রকাশ করেন যে, আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘতম যুদ্ধ শেষ করার জন্য প্রেসিডেন্ট বাইডেন যেমন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তেমন একটি সিদ্ধান্ত সিরিয়ার ক্ষেত্রেও হয়তো আসবে। কিন্তু আফগান ও সিরিয়ার পরিস্থিতি এক না। তাই সিরিয়া নিয়ে ওয়াশিংটন থেকে এখনই কোনো সিদ্ধান্ত আসছে না। ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত কার্যকরের ফলে গত ৩০ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের শেষ বিমান আফগানিস্তানের আকশসীমা ছেড়েছিল।

সরকারি হিসাবে সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের নয়শ সেনা সদস্য মোতায়েন রয়েছে। এসব সেনাদের প্রধান কাজ হচ্ছে ওয়াশিংটনের স্থানীয় সন্ত্রাসবিরোধী অংশীদারদের সহযোগিতা করা ও সশস্ত্র গোষ্ঠী আইএসের স্থায়ী পরাজয় নিশ্চিত করা।

আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্থানীয় আরব ও কুর্দি যোদ্ধাদের সহায়তা দেওয়ার জন্য সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে ২০১৪-২০১৫ সালে মার্কিন বাহিনীকে প্রথম এই অঞ্চলে পাঠানো হয়েছিল।

২০১৯ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর-পূর্ব সিরিয়া থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে দেশে-বিদেশে ব্যাপক সমালোচনার পর ট্রাম্প এই অঞ্চলে মার্কিন সৈন্য রাখতে সম্মত হন। এখন সেনা প্রত্যাহার না করে বাইডেন প্রশাসনও একই পথে হাঁটছেন।

এমএসএম/টিটিএন/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]