তুরস্কে নারীদের বিক্ষোভ মিছিলে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০৭ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২১

আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে তুরস্কে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করেছে। তাদের মধ্যে অধিকাংশই ছিল নারী।

দেশটির পুলিশ বিক্ষোভ দমনে কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, ২০১১ সালে নারীদের সুরক্ষায় তুরস্কের ইস্তাম্বুলে একটি চুক্তি হয়। যা ইস্তাম্বুল কনভেনশন নামে পরিচিত। এতে বিশ্বের ৪৫টি দেশ সই করে। তুরস্ক প্রথম দেশ হিসেবে ওই চুক্তিতে সই করলেও রিসেফ তাইয়্যেপ এরদোয়ানের সরকার চলতি বছরের জুলাই মাসে ওই চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ায়। সরকারের দাবি নারীদের প্রতি সহিংসতা বন্ধ করতে যে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল তা এক দল মানুষ ছিনতাই করেছে। তারা এ চুক্তিকে কাজে লাগিয়ে সমকামিতাকে কাজে লাগাতে চায়।

jagonews24

তুরস্ক চুক্তি থেকে সরে আসার পর দেশটিতে দুইবার বিক্ষোভ হয়। প্রথমবার বিক্ষোভ হয় মার্চে যখন এরদোয়ান প্রথম চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন। দ্বিতীয় বার বিক্ষোভ হয় ঘোষণাটি আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর করার পর। সর্বশেষ বিক্ষোভ হলো বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে। বিক্ষোভকারীদের দাবি তুরস্ককে ওই চুক্তিতে ফিরতে হবে।

এরদোয়ান জানিয়েছেন, নারীদের সুরক্ষায় দেশটির বিদ্যমান আইনই যথেষ্ট। তবে নারী অধিকারকর্মীরা জানিয়েছেন, ২০১১ সালের চুক্তিতে যে রোডম্যাপ ছিল তা এরদোয়ান সরকার কখনোই সম্পূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করেনি।

জানা গেছে, ২০২১ সালেই তুরস্কে পুরুষের হাতে ২৮৫ জন নারী নিহত হয়েছেন।

ইস্তাম্বুল কনভেনশন থেকে তুরস্ক নিজেদের নাম প্রত্যাহার করায় দেশটির নারীরা সরকারের ওপর আস্থা হারিয়েছেন। সরকার তদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চায় এ কথা তারা বিশ্বাস করতে চান না।

এমএসএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]