মদ্যপ অবস্থায় দুর্ঘটনা রোধে শিলিগুড়ি পুলিশের অভিনব উদ্যোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৫২ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

পশ্চিমবঙ্গ সংবাদদাতা

মদ্যপ অবস্থায় যাতে কেউ সড়ক দুর্ঘটনার শিকার না হয় সেজন্য অভিনব উদ্যোগ নিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ি পুলিশ। রেস্তোরাঁ কিংবা বারে বসে মদপান করলেও আর দুশ্চিন্তা করতে হবে না। কারণ যারা বারে বা রেস্তোঁরায় বসে মদপান করবেন তাদের বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নেবে পুলিশ। এ বিষয়ে খুব শিগগিরই প্রতিটি বার ও রেস্তোরাঁয় তৈরি হবে মনিটরিং টিম।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সেভ ড্রাইভ, সেভ লাইফের এক অনুষ্ঠানে শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার গৌরব শর্মা এসব তথ্য জানিয়েছেন।

করোনা পরিস্থিতি স্বভাবিক হতেই আবার শহরের অধিকাংশ রেস্তোরাঁ কিংবা বারে ভিড় বাড়ছে মদপানকারীদের। তার ওপর সামনেই বড়দিন এবং ইংরেজি নতুন বর্ষবরণ। ফলে স্বভাবিকভাবেই আনন্দ উল্লাসে মাতবে এই প্রজন্মের যুবক-যুবতীরা। ফলে মদ্যপ অবস্থায় যাতে কেউ সড়ক দুর্ঘটনার শিকার না হয় সেজন্য অভিনব এই উদ্যোগ নিচ্ছে পুলিশ।

পুলিশ কমিশনার গৌরব শর্মা বলেন, সামনে বড়দিন, তার ওপর নতুন ইংরেজি বর্ষবরণ। আর সেই সময় মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোয় সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে যায়। সেজন্য আমরা শহরের বিভিন্ন রেস্তোরাঁ, বার মালিকপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করবো। তাদের নির্দেশ দেওয়া হবে যাতে তাদের বার ও রেস্তোরাঁয় একটি করে মনিটরিং টিম থাকবে, যারা মদ্যপদের পরিস্থিতি যাচাই করবে। কেউ যদি অতিরিক্ত মদপান করে থাকে তবে পুলিশকে জানাবে। পুলিশ তাকে বাড়ি রেখে আসবে বা স্থানীয় ট্যাক্সি ইউনিয়নের মাধ্যমে তাকে বাড়ি পৌঁছে দেবে।

শীতকালে মূলত বর্ষবরণ এবং বড়দিনের অনুষ্ঠানের আগে অধিকাংশ সড়ক দুর্ঘটনায় দেখা গেছে, গাড়িচালকদের মদ্যপানের কারণে ঘটেছে এসব দুর্ঘটনা। ফলে এ বছরও আগেভাগেই শহরে সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে অভিনব উদ্যোগ নিলেন শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার। এছাড়া শহরে বেশ কিছু ট্রাফিক ফাঁড়ির সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি মূল সড়ক সংলগ্ন বাজার ও দোকানে সিসি ক্যামেরা বসানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

জ্যোতির্ময় দত্ত/ইএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]