ওমিক্রন: সিকিমে বিদেশি পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৯ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

পশ্চিমবঙ্গ সংবাদদাতা

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় সৃষ্ট পরিস্থিতি স্বভাবিক হতে না হতেই এবার নতুন আতঙ্ক ওমিক্রন। করোনার নতুন এ ভ্যারিয়েন্ট রুখতে ঝুঁকি না নিয়ে আগেভাগেই বিদেশি পর্যটকের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করলো সিকিম সরকার। গতকাল মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সিকিম সরকারের স্বরাষ্ট্র দপ্তর এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

করোনার কারণে দীর্ঘদিন এমনিতেই পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের পর্যটন শিল্প ধাক্কা খেয়েছে। তবে দ্বিতীয় ঢেউয়ের পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হতেই ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছিল উত্তরের পর্যটন শিল্প। নতুন করে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের আতঙ্কে ক্ষতির মুখে পড়তে পারে উত্তরের এই পর্যটন শিল্প।

সাধারণত এই সময়টাকে উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমে পর্যটনের মৌসুম ধরা হয়। ইতোমধ্যে সিকিমে আনাগোনা শুরু হয়েছে ভারতের পাশাপাশি বিদেশি পর্যটকদের। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি সিকিমের পর্যটন সার্কিট মিলিয়ে প্রায় আট থেকে দশ শতাংশ বিদেশি পর্যটক এসে থাকেন। তবে এই ভরা পর্যটন মৌসুমে বিশ্বজুড়ে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আতঙ্ক দেখা দিতেই ঝুঁকি এড়াতে আগেভাগে বিদেশি পর্যটকদের জন্য দরজা বন্ধ করলো সিকিম সরকার। ইতিমধ্যে এ সংক্রান্ত এক নির্দেশনা জারি করেছে সিকিমের স্বরাষ্ট্র দপ্তর। আর এটা উত্তরবঙ্গ সহ সিকিমের পর্যটন শিল্পে বড়সড় ধাক্কা বলে মনে করছেন এ খাত সংশ্লিষ্টরা।

ভরা পর্যটন মৌসুমে সিকিমে এই মূহুর্তে উত্তর আমেরিকা, নেদারল্যান্ড, ইউক্রেন, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশের পর্যটকরা রয়েছেন। নতুন এ নির্দেশনা জারি হতেই বিদেশি ওইসব পর্যটকদের ধীরে ধীরে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তবে বিদেশি পর্যটকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও ভারতের অন্য রাজ্যের পর্যটকদের প্রবেশে কোনো নিষেধাজ্ঞা থাকছে না। তবে এক্ষেত্রে ভারতের অন্য রাজ্যের পর্যটকদের করোনার অন্তত এক ডোজ টিকাগ্রহণের সনদ ও ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করা আরটিপিসিআর নেগেটিভ রিপোর্ট জমা দিতে হবে।

হিমালয়ান হসপিটালিটি ট্রাভেল ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্কের সম্পাদক সম্রাট সান্যাল বলেন, এমনিতেই করোনার কারণে উত্তরবঙ্গের পর্যটন শিল্পে অনেকটাই ক্ষতি হয়েছে। তারওপর আবার নতুন ভ্যারিয়েন্টের আতঙ্ক। এটা একটা বড় ধাক্কা বটে। তবে মানুষের জানমালের স্বার্থে ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিকিম সরকার। আপাতত সিকিমে বিদেশি পর্যটকদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে। এমনকি যারা আগে থেকে সিকিমে রয়েছেন তাদেরও ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

কেএসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]