ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সিগারেট নিষিদ্ধ করছে নিউজিল্যান্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১৭ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
ছবি : সংগৃহীত

ধূমপানমুক্ত দেশ গড়তে এক মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। বলা হচ্ছে, এটি বাস্তবায়িত হলে আগামী কয়েক দশকের মধ্যে দেশটিতে আর কোনো ধূমপায়ী থাকবে না। বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) ধূমপানবিরোধী এই পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড সরকার। আগামী বছরই তা আইনে পরিণত হতে পারে। সেটি হলে এখনকার শিশুরা ভবিষ্যতে আর ধূমপানের সুযোগ পাবে না।

নিউজিল্যান্ডের সহযোগী স্বাস্থ্যমন্ত্রী আয়েশা ভেরাল এক টুইটে বলেছেন, ধূমপানমুক্ত ভবিষ্যৎ গড়তে এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নিচ্ছে নিউজিল্যান্ড। ধূমপানমুক্ত ২০২৫ কর্মপরিকল্পনার অংশ হিসেবে আমরা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে সিগারেট বিক্রি নিষিদ্ধ করাসহ বেশ কিছু সাহসী কিছু পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করবো।

কীভাবে হবে বাস্তবায়ন
বর্তমানে নিউজিল্যান্ডে ১৮ বছরের কম বয়সী সবার জন্য সিগারেট আইনত নিষিদ্ধ। কিন্তু ২০২৭ সাল থেকে বয়সের এই সীমা আরও নামিয়ে আনা হবে। তখন যাদের বয়স ১৪ বছর থাকবে, তারা আর কোনোদিনই সিগারেট কেনার বৈধতা পাবে না। শুধু তা-ই নয়, ধারাবাহিকভাবে কমিয়ে আনা হবে স্বীকৃত সিগারেট বিক্রেতার সংখ্যা এবং নিকোটিনের মাত্রা।

তামাকমুক্ত প্রজন্ম গড়ার এই আইনটি আগামী বছরের জুনে নিউজিল্যান্ডের পার্লামেন্টে উপস্থাপন করা হবে। ২০২২ সালের শেষের দিকে এর বাস্তবায়ন শুরু করতে চায় দেশটির সরকার।

একটি বিবৃতিতে আয়েশা ভেরাল বলেন, তরুণরা যেন কখনোই ধূমপান শুরু না করে, আমরা তা নিশ্চিত করতে চাই। তাই তাদের কাছে তামাকজাত পণ্য বিক্রি বা সরবরাহ অপরাধ হিসেবে পরিণত করবো।

বর্তমানে নিউজিল্যান্ডে ১৫ বছর বয়সোর্ধ্বদের মধ্যে ১১ দশমিক ৬ শতাংশই ধূমপানে আসক্ত। তবে মাওরি আদিবাসীদের মধ্যে এর হার ২৯ শতাংশের মতো। তাই আইনটি পাস করার আগে একটি মাওরি স্বাস্থ্য টাস্কফোর্সের সঙ্গে পরামর্শ করবে নিউজিল্যান্ড সরকার।

তামাকের খুচরা বিক্রিতে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি কড়াকড়ি আরোপ করা দেশের মধ্যে নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয়। প্রথমস্থানে থাকা ভুটানে সিগারেট বিক্রি পুরোপুরি নিষিদ্ধ। নিউজিল্যান্ডের প্রতিবেশী অস্ট্রেলিয়াতেও রয়েছে তামাকবিরোধী কঠোর আইন। ২০১২ সালে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে সিগারেটের সাদামাটা প্যাকেজিং বাধ্যতামূলক করে অজিরা।

নিউজিল্যান্ডে প্রতি বছর ধূমপানের কারণে অন্তত পাঁচ হাজার মানুষ মারা যান, যা দেশটিতে সবচেয়ে বেশি প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যুর ঘটনা। সেখানে প্রতি পাঁচজনের চারজন ধূমপায়ী বয়স ১৮ বছর হওয়ার আগেই ধূমপান শুরু করেন।

নিউজিল্যান্ডের তামাকবিরোধী নতুন প্রস্তাবনায় স্বাভাবিকভাবেই সন্তুষ্ট স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা। তবে, প্রকাশ্যে সিগারেট বিক্রি নিষিদ্ধ হলে কালোবাজারি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে সতর্ক করেছেন ব্যবসায়ীরা।

সূত্র: ডয়েচে ভেলে, রয়টার্স

কেএএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]