পশ্চিমাদের সঙ্গে বৈঠক করতে নরওয়েতে আফগান কূটনীতিকরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০০ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২২

আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল ও সরকার গঠনের পর প্রথমবারের মতো তালেবান কূটনীতিকরা ইউরোপে পশ্চিমা কর্মকর্তাদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক আলোচনায় বসতে যাচ্ছেন। টানা তিন দিনের বৈঠকের উদ্দেশ্যে নরওয়ের অসলোতে পৌঁছেছেন তারা। যদিও বলা হচ্ছে, আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে মানবিক সহায়তার বিষয়টি।

জানা গেছে, স্থানীয় সময় শনিবার (২২ জানুয়ারি) তালেবান সরকারের প্রতিনিধি দলটি অসলোতে পৌঁছায়। আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত পশ্চিমা কূটনীতিকদের সঙ্গে তালেবানের সদস্যদের বৈঠক চলবে।

তালেবানের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, নরওয়ের সরকারের আয়োজিত এই বৈঠকে ১৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল প্লেনে করে অসলোতে পৌঁছান।

জানা গেছে, বৈঠকের প্রথমদিন রোববার দুই প্রতিনিধি দল কথা বলবে মানবাধিকার সংকট ও সহায়তার বিষয়গুলো নিয়ে। বৈঠকে থাকছেন নরওয়ে ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের কর্মকর্তাসহ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা।

তালেবানের পক্ষ থেকে সুশীল সমাজ, বিশেষ করে নারী নেত্রী ও সাংবাদিকদের সঙ্গেও বৈঠক করার কথা জানা যাচ্ছে।

বৈঠকের এজেন্ডা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, দেশটির একটি প্রতিনিধিত্বমূলক রাজনৈতিক ব্যবস্থা গঠন, জরুরিভিত্তিতে মানবিক ও আর্থিক সংকটের বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে। এছাড়া, নিরাপত্তা এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ব্যবাপারে সতর্কতা, মানবাধিকার বিশেষ করে নারী ও কন্যা শিশুদের শিক্ষা নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, পশ্চিমা বিশ্বের বিভিন্ন বিষয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে তালেবান এবং পশ্চিমা বিশ্বসহ সব দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করতে চান তারা।

তালেবানের এই মুখপাত্র আরও বলেন, যুদ্ধের পরিবেশকে একটি শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতিতে রূপান্তর করতে চান তারা।

এদিকে, এই আলোচনার আয়োজন করা নিয়ে নিন্দা জানাচ্ছেন অনেক আফগান। আফগানিস্তানের বিরোধী দল ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) বৈদেশিক সম্পর্কের প্রধান আলী মাইসাম নাজারি আলোচনার আয়োজন করার জন্য নরওয়ের কঠোর সমালোচনা করেছেন। প্যারিস থেকে এক টুইট বার্তায় শুক্রবার তিনি বলেন, আফগানিস্তানের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সন্ত্রাসী সংগঠনের বিরুদ্ধে আমাদের আওয়াজ তুলতে হবে।

যদিও নরওয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যানিকেন হুইটফেল্ড আফগান আলোচনার আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে বলেছেন, এই বৈঠক তালেবানের স্বীকৃতির বিষয়টিকে বৈধতা দেয় না। তিনি আরও বলেন, দেশটির ফ্যাক্টরগুলো নিয়ে আমাদের কথা বলতে হবে। রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে মানবিক বিপর্যয় ঘটতে দেওয়া যায় না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বিশ্বের কেনো দেশ এখনো তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি। বিশেষ করে ক্ষমতা গ্রহণের পর নারী শিক্ষাসহ নানা ইস্যুতে দেশের অভ্যন্তরে ও বাইরে সমালোচিত হচ্ছে তালেবান সরকার।

সূত্র: ডয়েচে ভেলে

এসএনআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]