ফের টয় ট্রেনে যাওয়া যাবে দার্জিলিং

জ্যোতির্ময় দত্ত জ্যোতির্ময় দত্ত , পশ্চিমবঙ্গ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৪:০৯ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২২

বিপর্যয় কাটিয়ে প্রায় তিন মাস পর ফের পাহাড়ি পথে শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত যাত্রা শুরু করলো টয় ট্রেন। এখন থেকে নিউ জলপাইগুড়ি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত সরাসরি ট্রেনেই সফর করতে পারবেন পর্যটকরা। দীর্ঘদিন এই পরিষেবা বন্ধ থাকায় উত্তরবঙ্গের পর্যটন শিল্পে এর প্রভাব পড়েছিল। তবে আবার নতুন করে পরিষেবা চালু হওয়ায় খুশির আমেজ শুরু হয়েছে উত্তরবঙ্গের পর্যটন শিল্পে।

আঁকাবাঁকা পাহাড়ি পথ, তার ওপর পাহাড়ে ঝিঁঝিঁ পোকার ডাক আর এরই মাঝে খেলনা গাড়িতে চেপে দার্জিলিংয়ে পৌঁছে যাওয়া, সবটাই যেন পর্যটকদের রোমাঞ্চকর ভ্রমণের অন্যতম যাত্রাপথের কাহিনী। কিন্তু মাঝে কিছুদিন পর্যটকদের এই রোমাঞ্চকর যাত্রাপথে ছেদ পড়ে।

উত্তরবঙ্গে আসা পর্যটকদের কাছে বরাবরই দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে বা টয় ট্রেন সফর ভ্রমণের আকর্ষণের অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু। তবে গত বছরের অক্টোবরে পাহাড়ে এক টানা বৃষ্টিতে কার্শিয়াংয়ের মহানদীর কাছে ৫৫নং জাতীয় সড়কে ধসের কারণে জাতীয় সড়কের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ট্রেন লাইন।

এর ফলে এনজেপি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত টয় ট্রেনের যাত্রাপথ মাঝপথেই থমকে গিয়েছিল। ফলে পর্যটকরা উত্তরবঙ্গে এসেও শিলিগুড়ি থেকে সরাসরি দার্জিলিং পর্যন্ত টয় ট্রেনে সফর করা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। অবশেষে মহানদীতে রাস্তা মেরামত হওয়ার পর ট্রয় ট্রেন লাইন মেরামতের কাজ শেষ হতেই ফের নিউ জলপাইগুড়ি থেকে সরাসরি দার্জিলিং পর্যন্ত ট্রেন পরিষেবা চালু হলো।

jagonews24

রেলের ডিএইচআর সূত্র জানিয়েছে, এতদিন পর্যন্ত পর্যটকদের কার্শিয়াং রেল স্টেশন পর্যন্ত বাসে করে নিয়ে যাওয়া হতো। সেখান থেকে টয় ট্রেনে পর্যটকরা দার্জিলিংয়ে সফর করতে পারতো। কিন্তু আবার সরাসরি দার্জিলিং পর্যন্ত টয় ট্রেন সেবা চালু হওয়ায় খুশি উত্তরবঙ্গের ট্যুর অপারেটরা।

ডিএইচআর-এর পরিচালক এ কে মিশ্র বলেন, ১৯ অক্টোবর কার্শিয়াংয়ে ধসের কারণে নিউ জলপাইগুড়ি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত সরাসরি টয় ট্রেন পরিসেবা বন্ধ ছিল। রাস্তা মেরামতের কাজ শেষ হতেই গত ২১ জানুয়ারি থেকে ফের তা স্বাভাবিক হয়েছে। এখন পর্যটক কম থাকলেও ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। একজন যাত্রী থাকলেও এই সেবা দেওয়া হবে।

অ্যাসোসিয়েশন ফর কনজারভেশন অ্যান্ড ট্যুরিজমের আহবায়ক রাজ বসু বলেন, দীর্ঘদিন পর নিউ জলপাইগুড়ি থেকে দার্জিলিং পর্যন্ত ট্রেন পরিষেবা চালু হওয়ায় আমরা খুশি। উত্তরবঙ্গে আসা পর্যটকদের মূল আকর্ষণ হলো কাঞ্চনজঙ্ঘা, চা এবং টয় ট্রেন। তবে কাঞ্চনজঙ্ঘার দেখা মেলা সম্পূর্ণ নির্ভর করে আবহাওয়ার উপর। অন্যদিকে চা পাতার সৌন্দর্য তেমন থাকে না। সুতরাং এখন ভরসা টয় ট্রেনেই। এই পরিষেবা চালু হওয়ায় পর্যটকদের ভিড় বাড়বে বলে আশা করা যাচ্ছে।

হিমালয়ান হসপিটালিটি ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্কের সম্পাদক সম্রাট স্যানাল বলেন, এতকিছু বন্ধের মধ্যে এই মূল লাইনে ট্রেন পরিষেবা চালু হওয়ায় এর আকর্ষণে কিছু পর্যটক উত্তরবঙ্গে আসবে। এর ফলে পর্যটন শিল্প কিছুটা প্রাণ পাবে। তবে এই পরিষেবা যাতে স্বাভাবিক থাকে সে বিষয়টা রেলকেই দেখতে হবে।

টিটিএন/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]