শাহবাজকে মোদীর অভিনন্দন, শান্তি ও স্থিতিশীলতা চায় ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৫ এএম, ১২ এপ্রিল ২০২২
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর মুসলিম লীগ (নওয়াজ) নেতা শাহবাজ শরিফকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অভিনন্দন বার্তায় মোদী দুই দেশের মধ্যে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের। 

টুইটারে মোদী লিখেছেন, ‘পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার জন্য মিয়া মহম্মদ শাহবাজ শরিফকে অভিনন্দন। সন্ত্রাসমুক্ত অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখতে চায় ভারত। যাতে আমরা উন্নয়ন নজর দিয়ে জনগণের কাজ করতে পারি।’

এর আগে নিজের প্রথম ভাষণে কাশ্মীর প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, কাশ্মীর ইস্যুর সমাধান হয়ে গেলে দুই দেশের দারিদ্র্য ও বেকারত্বের মতো সমস্যার সমাধানে জোর দেওয়া যাবে। তিনি বলেন, আমরা ভারতের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার আশা করছি। কিন্তু কাশ্মীর সমস্যার উপযুক্ত সমাধান ছাড়া দীর্ঘকালীন শান্তি বজায় রাখা সম্ভব নয়।

ইমরান খানের দল পিটিআই পার্লামেন্টে থেকে ওয়াক আউট করার পর ১৭৪ সদস্যের ভোটে পাকিস্তানের ২৩তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাই শাহবাজ। প্রধানমন্ত্রিত্ব নিশ্চিত হওয়ার পর ভাষণে শাহবাজ শরিফ বলেন, পাকিস্তানকে উন্নতি করতে হলে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হতে হবে।

পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল মূলত ২০২৩ সালের আগস্টে। কিন্তু তার আগেই অনাস্থা ভোটে হেরে ক্ষমতা ছাড়তে হয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে। অতীতের ধারা অনুসরণ করে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের পতনও হয়েছে মেয়াদ পূর্ণ করার আগেই।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী পদে পিটিআইয়ের ভাইস-চেয়ারম্যান শাহ মুহাম্মদ কোরেশি ও পিএমএল-এন শাহবাজ শরিফ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু সোমবার পার্লামেন্টে কোরেশি ঘোষণা দেন, তাদের দলের সবাই একসঙ্গে পদত্যাগ করবেন। এর পরপরই পার্লামেন্ট থেকে ওয়াক আউট করেন তারা।

ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি ‘বিবেকের বাধায়’ দায়িত্ব পালন করতে না পারায় এদিন অধিবেশন পরিচালনা করেন পিএমএল-এন নেতা আয়াজ সাদিক। চেয়ারে বসে তিনি ঘোষণা দেন, আইনপ্রণেতাদের পার্লামেন্ট কক্ষে প্রবেশের জন্য পাঁচ মিনিট ধরে ঘণ্টা বাজানো হবে। ঘণ্টা থামার পর সব দরজা বন্ধ করে দেওয়া হবে এবং ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত কেউ ঢুকতে বা বের হতে পারবেন না। এরপর প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন সাদিক।

কেএসআর/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]