ন্যানো চড়ে দেহরক্ষী ছাড়াই তাজ হোটেলে ধনকুবের রতন টাটা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১৯ পিএম, ১৮ মে ২০২২

রতন টাটা ভারতের প্রথম সারির শিল্পপতি। তবে আর পাঁচজন শিল্পপতির মতো তার জীবনধারায় নেই কোনো চাকচিক্য কিংবা জৌলুস। বরাবরই খুব সাদামাটা জীবনযাপনে অভ্যস্ত তিনি। শিল্পপতির এই বিনম্র স্বভাব অনেকের হৃদয় জয় করেছে।

সম্প্রতি রতন টাটার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোনো বিলাসবহুল গাড়িতে নয়, টাটা ন্যানোয় চড়েই মুম্বাইয়ের নামি হোটেলে নৈশভোজের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গেছেন এই শিল্পপতি। শুধু তাই নয়, তার সঙ্গে দেখা যায়নি কোনো নিরাপত্তারক্ষীকেও।

রতনের এই আচরণে অবিভূত অনেকে। এত বড় শিল্পপতি হওয়া সত্ত্বেও এখনো মাটির মানুষ তিনি! তার সাদাসিধে জীবনযাপনকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ভক্তরা। কেউ লিখেছেন, ন্যানো গাড়ি মধ্যবিত্তের কাছে আশীর্বাদস্বরূপ ছিল। রতন টাটা মধ্যবিত্তকে যে উপহার দিয়েছিলেন, তাতে আমরা গর্বিত। আরেকজন লিখেছেন, মানবতার প্রকৃষ্ট উদাহরণ রতন টাটা। তাকে সম্মান জানাই।

জানা গেছে, ২০১৮ সালে বাজার থেকে ন্যানো গাড়ি তুলে নেওয়া হয়। বিক্রিতে ভাটা দেখা দিয়েছিল বলেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল টাটা।

সম্প্রতি এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে এই ন্যনো গাড়ি নিয়েই আবেগঘন হতে দেখা গেছে রতন টাটাকে। সেই পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, মধ্যবিত্ত ভারতীয়দের আমি স্কুটারেই যাতায়াত করতে দেখতাম। রাস্তায় বাবা-মায়ের মাঝে বসে প্রায় চেপ্টে যেতে দেখতাম শিশুদের। আর সেখান থেকেই টাটা ন্যানো তৈরির ভাবনা আসে আমাদের মাথায়। স্কুটারের কাছাকাছি দামেই মধ্যবিত্তের হাতে চার চাকার গাড়ি তুলে দেওয়াই ছিল মূল ভাবনা।

সূত্র: জি নিউজ

এমএসএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]