বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য বৃদ্ধির অভূতপূর্ব সুযোগ তৈরি হয়েছে

জ্যোতির্ময় দত্ত জ্যোতির্ময় দত্ত , পশ্চিমবঙ্গ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৮:৫০ পিএম, ২৬ মে ২০২২

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্ভাবনা বিকাশে গুরুত্বারোপ করেছেন কলকাতায় বাংলাদেশের উপ-রাষ্ট্রদূত আন্দালিব ইলিয়াস। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত দুই প্রতিবেশীর মধ্যে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ বাড়ানোর ক্ষেত্রে এক সুবর্ণ সুযোগ তৈরি হয়েছে, যা অভূতপূর্ব।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) কলকাতায় ভারত চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত এক সভায় বণিকসভার সদস্যদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন আন্দালিব ইলিয়াস। তিনি বলেন, দু’দেশের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে এই সম্ভবনাময় সুযোগগুলো বাস্তবায়িত করতে পারলে আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব হবে।

সভায় ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি রিজওয়ানুর রহমান বলেন, ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ৯৯০ কোটি মার্কিন ডলারের বাণিজ্য হয়েছে। দু’দেশের শক্তিশালী সম্পর্ক এটিকে শিগগির এক হাজার কোটি ডলারে নিয়ে যেতে সক্ষম।

এসময় ভারত চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি প্রদীপ সুরেকা বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক খুবই শক্তিশালী। দু’দেশই এই সম্পর্ককে আরও জোরদার এবং মজবুত করতে সচেষ্ট। আর দুই প্রতিবেশীর এমন বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের অভিমুখ পশ্চিমবঙ্গ বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত পশ্চিমবঙ্গের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, পদ্মাসেতু চালু হলে দু’দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে নতুন দিগন্ত খুলে যাবে।

‘এক্সপ্লোরিং ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট অপারচুনিটিজ বিটুইন বাংলাদেশ অ্যান্ড ইন্ডিয়া’ শীর্ষক ওই সভায় বাংলাদেশের ৫০ ব্যবসায়ীসহ ভারতের বিভিন্ন চেম্বার অব কমার্সের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

কেএএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]