বিহারে ফিল্মি স্টাইলে স্বর্ণের দোকানে লুটপাট, মালিককে খুন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৯ পিএম, ২৬ জুন ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের বিহারে স্বর্ণের দোকানে ফিল্মি স্টাইলে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় দোকানটির মালিককে খুন করেছে দুষ্কৃতকারীরা। পুরো ঘটনা ধরা পড়ে ওই দোকানের সিসিটিভিতে। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে দুষ্কৃতকারীদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। নিরাপত্তার স্বার্থে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটি বিহারে হাজিপুরের ঘটেছে। গত ২২ জুন ডাকাতি হয় শহরের নিলম জুয়েলারি নামের দোকানে। ওই সোনার দোকানটি সুভাষ ও মাদাই চকের মাঝামাঝি জায়গায় অবস্থিত। ২২ জুন রাত আটটা নাগাদ দুষ্কৃতরা হঠাৎ স্বর্ণের দোকানে প্রবেশ করে।

ডাকাতির ঘটনার যে সিসিটিভি ফুটেজ ভাইরাল হয়েছে সেখানে দেখা গিয়েছে, চারজন দোকানে ঢুকে পড়ছে। ঢুকেই উপস্থিত ক্রেতাদের ওপর চড়াও হয় তারা। এক ব্যক্তিকে একাধিকবার চড় মারে একজন দুষ্কৃকারী। এক নারী ক্রেতা ও দুটি শিশুকেও দেখা যায় দোকানে। ওই নারী আতঙ্কে সন্তানদের জাপটে ধরে মেঝেতে বসে পড়েন।

দোকানের মালিক সুনীল প্রিয়দর্শী দুষ্কৃতদের বাধা দিলে তাকে দফায় দফায় বেধড়ক মারতে থাকে চার দুষ্কৃতকারী। একই সঙ্গে দোকানে ভাঙচুর চালিয়ে লুটপাট করতে থাকে তারা। পরে দোকানের মালিককে গুলি করে খুন করা হয়।

এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে হাজিপুর শহরে। ডিএসপি দ্রুত তদন্ত করে দুষ্কৃতদের ধরার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও ঘটনাস্থল ওই বাজার এলাকায় নিরাপত্তার স্বার্থে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে ঘটনার পর বেশ কয়েক দিন কেটে গেলও এখনো একজন দুষ্কৃতীকেও গ্রেফতার করা যায়নি।

সম্প্রতি বিহারের একটি ডাকাতির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে ছিল। গত মাসে জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারকের বাড়িতে ঢুকে নগদ অর্থ ও গয়না মিলিয়ে তিন লাখের বেশি টাকার জিনিস লুট করে এক দল ডাকাত। শুধু তাই-ই নয়, বিচারকের স্ত্রী ও মেয়েকে মারধরও করে ডাকাতরা।

এমএসএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]