ভারত ছাড়াও যেসব দেশের স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:০৮ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০২২

বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারত। দেশটিতে ৭৫তম স্বাধীনতা দিবসের উদযাপন চলছে। ১৯৪৭ সালে ১৫ আগস্ট ব্রিটিশদের হাত থেকে স্বাধীন হয় ভারত। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো এদিন ভারত ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি দেশ স্বাধীন হয়। চলুন যেনে নেওয়া যাক দেশগুলো সম্পর্কে।

বাহরাইন

দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র বাহরাইন। পারস্য উপসাগরের পশ্চিম অংশের ৩৬টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত দেশটি। এর পূর্বে কাতার ও পশ্চিমে সৌদি আরব। ১৯৭১ সালের ১৫ আগস্ট ব্রিটিশদের থেকে স্বাধীনতা পেয়েছিল বাহরাইন। ২০২০ সালের জনগণনা অনুযায়ী, বাহরাইনের জনসংখ্যা ১৫ লাখের কিছু বেশি।

jagonews24
দেশটির অর্থনীতি প্রধানত পেট্রোলিয়াম উৎপাদন, প্রক্রিয়াকরণ ও রিফাইনিংয়ের ওপর নির্ভরশীল। এদেশের শ্রমবাজারের ৫ ভাগের ৩ ভাগ দখল করে আছে বিদেশি শ্রমিকেরা। যোগাযোগব্যবস্থা ভালো হওয়ায় পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের অনেক বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান এখানে সদরদপ্তর স্থাপন করেছে। পর্যটন খাত অনেক উন্নতি সাধন করেছে।

কঙ্গো

১৯৬০ সালের ১৫ আগস্ট ফরাসিদের হাত থেকে স্বাধীনতা পেয়েছিল কঙ্গো। ৮০ বছর ধরে এর শাসনক্ষমতা ছিল ফরাসিদের হাতে। ভূখণ্ডের পরিমাপের নিরিখে আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ এটি।

ফরাসি উপনিবেশগুলির মধ্যে অন্যতম বড় দেশ ছিল কঙ্গো। ২০১৫ সালের পর তেলের দাম কমে যাওয়ায় দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি যথেষ্ট মন্থর হয়েছে। এই দেশের জনসংখ্যা প্রায় ৫২ লাখ। এর মধ্যে ৮৮ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ খ্রিস্টান।

jagonews24

লিকটেনস্টাইন

লিকটেনস্টাইন নামটি অনেকের কাছে অপরিচিত। কিন্তু এটিও একটি দেশ। বস্তুত বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দেশের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে লিকটেনস্টাইন। ১৮৬৬ সালের ১৫ আগস্ট জার্মান শাসকদের হাত থেকে স্বাধীন হয় দেশটি।

আয়তনের দিক থেকে ক্ষুদ্র দেশের তালিকায় থাকলেও মাথাপিছু আয়ের দিকে অনেকটাই ওপরে রয়েছে লিকটেনস্টাইন। ২০১৯ সালের জনগণনা অনুযায়ী, এ দেশে মোট ৩৮ লাখ ৭৪৯ জনের বসবাস।

jagonews24

কোরিয়া

১৯৪৫ সালে ১৫ আগস্ট দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানি সাম্রাজ্যের আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা পায় কোরিয়া। তার তিন বছর পর দুভাগ হয়ে জন্ম নেয় উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া।

এরপর উত্তর কোরিয়ার সরকারি নাম হয় গণতান্ত্রিক গণপ্রজাতন্ত্রী কোরিয়া। দেশটির আয়তন ১ লাখ ২০ হাজার ৫৩৮ বর্গকিলোমিটার। উত্তর কোরিয়া রাষ্ট্রটি ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। উত্তর কোরিয়ার রাজধানী ও বৃহত্তম শহরের নাম পিয়ং ইয়াং।

দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি নাম কোরীয় প্রজাতন্ত্র। সিউল হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার বৃহত্তম শহর ও রাজধানী। ১৯৫০-১৯৫৩ সালে কোরীয় যুদ্ধের পরে ধ্বংসপ্রায় দক্ষিণ কোরিয়া ১৯৯০ সালে এসে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশগুলোর একটিতে পরিণত হয়।

জেডএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।