চীনে রেস্টুরেন্টের ভেতরে ২ নারীকে মারধর: মূলহোতার ২৪ বছর জেল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২১ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২
সংগৃহীত

চীনে একটি রেস্টুরেন্টের ভেতরে দুই নারীকে মারধরের মামলায় প্রধান আসামির ২৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। সেসময় ঘটনাটির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। প্রশ্ন উঠেছিল শি জিনপিং সরকারের নারীর সমতায়নের বিষয়টি নিয়ে।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বেইজিংয়ের বাইরে উত্তরের শহর লাংফাংয়ের একটি আদালত এ রায় দেন। মামলার রায়ে বলা হয়েছে, চেন জিঝির অপরাধী গোষ্ঠী ‘অপরাধমূলক কাজ পরিচালনা, নিপীড়ন এবং স্থানীয় অর্থনীতি ও সাধারণ মানুষের মাঝে বিশৃঙ্খলা তৈরি ও ক্ষতিসাধন করেছে। এসব ঘটনায় সমাজে গুরুতর প্রভাব পড়ে।

মামলার আরও ২৭ আসামিকে ৬ মাস থেকে ১১ বছর পর্যন্ত সাজা দেওয়া হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে দুই নারীকে মারধরের অভিযোগ আনা হয়েছে। একই সঙ্গে অভিযোগ রয়েছে ২০১২ সাল থেকে ডাকাতি, ক্যাসিনো চালানো এবং অবৈধ কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়গুলো।

দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর তাংশানের একটি রেস্টুরেন্টে গত জুন মাসে ঘটে এমন ঘটনা। চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম উইবোতে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় যে, এক ব্যক্তি ওই নারীকে অনৈতিকভাবে স্পর্শ করতে গেলে বাঁধা দেন তিনি। এরপর তাকে মারধর শুরু করেন ওই ব্যক্তি। পরে আরেকজন নারীর ওপর হামলা চালানো হয়। পরে এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে ৯ জনকে আটক দেশটির পুলিশ।

এ ঘটনার পর মিটু# আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। অভিযোগ উঠে শি জিনপিং সরকারের নারীর সমতায়ন নিয়ে। তবে শি জিনপিংয়ের সরকার বিতর্কগুলোকে উদারপন্থী পশ্চিমা মূল্যবোধ ছড়িয়ে দেওয়ার একটি বাহন হিসাবে দেখে। ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির ২৫-সদস্যের পলিটব্যুরোতে শুধু একজন নারী রয়েছেন এবং তিনি এ বছর সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী সংস্থাটি থেকে অবসর নিতে যাচ্ছেন।

এদিকে, চীনের এই রায় নিয়ে চলছে আলোচনা। সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে এই রায়ে এরই মধ্যে ৯২০ মিলিয়ন প্রতিক্রিয়া এসেছে টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম উইবোতে। অপরাধীদের অপরাধ প্রকাশ্যে আনার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন কেউ কেউ।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

এসএনআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।