রাশিয়াকে ড্রোন দেওয়ার অভিযোগ

ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক কমালো ইউক্রেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫৮ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
ইরানের তৈরি মোহাজের-৬ ড্রোন। ফাইল ছবি

যুদ্ধের ময়দানে ব্যবহারের জন্য রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহ করার অভিযোগে ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক কমালো ইউক্রেন। ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির দাবি, যুদ্ধে তারা এ পর্যন্ত আটটি ইরানি ড্রোন ভূপাতিত করেছেন। খবর রয়টার্সের।

ইউক্রেন এবং তার মিত্র যুক্তরাষ্ট্র ইরানের বিরুদ্ধে রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহের অভিযোগ তুলেছে। তবে এই অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছে তেহরান।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাতে এক ভিডিওবার্তায় জেলেনস্কি বলেন, আজ হামলার জন্য ইরানি ড্রোন ব্যবহার করেছে রুশ সেনাবাহিনী… শয়তানের সঙ্গে সহযোগিতার প্রতিটি উদাহরণ সম্পর্কে বিশ্ব জানবে এবং এর অনুরূপ পরিণতি হবে।

ইউক্রেনীয় সামরিক কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, শুক্রবার ওডেসা বন্দরের কাছে সমুদ্রের ওপর থেকে চারটি শাহেদ-১৩৬ ‘কামিকাজে’ ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করেছে তারা।

স্থানীয় দৈনিক ইউক্রেনস্কা প্রাভদা জানিয়েছে, দেশটির বিমান বাহিনী পৃথকভাবে বলেছে, প্রথমবারের মতো তারা মোহাজের-৬ নামে একটি বড় ইরানি ড্রোন ভূপাতিত করেছে।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর আগে জানায়, রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহ ইরানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ওপর গুরুতর আঘাত করেছে।

এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, এ ধরনের শত্রুসুলভ কাজের প্রতিক্রিয়ায় ইরানি রাষ্ট্রদূতের স্বীকৃতি বাতিল এবং কিয়েভে ইরান দূতাবাসের কূটনৈতিক কর্মীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউক্রেন। ইরানের স্থায়ী রাষ্ট্রদূত মানোচেহর মোরাদি ইউক্রেনের বাইরে থাকায় ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূতের কাছে এই বার্তা হস্তান্তর করা হয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। তারপর থেকে দু’পক্ষেরই বহু সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর জেনারেল স্টাফ সম্প্রতি এক টুইটে জানিয়েছেন, রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে তারা অন্তত ৫৫ হাজার ৫১০ জন সৈন্য হারিয়েছেন। এছাড়া ২ হাজার ২৩৬টি ট্যাঙ্ক এবং ৪ হাজার ৭৭৬টি সামরিক যানও হারিয়েছে ইউক্রেন।

গত বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির অর্থনীতি বিষয়ক উপদেষ্টা ওলেগ ওসতেনকো জানিয়েছেন, যুদ্ধে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে এক লাখ কোটি মার্কিন ডলারের কাছাকাছি ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে ইউক্রেন। ফেব্রুয়ারিতে আক্রমণের আগে ইউক্রেনের বার্ষিক জিডিপি যা ছিল, এই সংখ্যা তার পাঁচগুণ বলে জানিয়েছেন তিনি।

কেএএ/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।