জন্মদিনে বাড়তি আনন্দ এনে দিলো আকাশি নীল রঙের ব্যাঙ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫১ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
সংগৃহীত

জাপানের কিয়োটোতে এক ব্যক্তি তার বড় ছেলের জন্মদিনে আকাশি নীল রঙের ব্যাঙের সন্ধান পান। নিজের ধানক্ষেতে ওই ব্যক্তি খুঁজে পান বাহারি রঙের ব্যাঙটি। ছেলের জন্মদিনে তাই বাড়ি আনন্দ যোগ করতে পেরেছেন ওই ব্যক্তি।

৪১ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি গত ৪ সেপ্টেম্বর ধান কাটতে গিয়ে আবিষ্কার করেন ব্যাঙটিকে। জাপানি গেছো ব্যাঙ সাধারণত সবুজ হয়, তবে এটির শরীরে জন্মগতভাবে হালকা হলুদ রঙের মিশেলে নীল রঙ হয়ে গেছে বলে মনে হয়।

গেছো ব্যাঙের দেহ সব সময় ভেজা থাকে। ফুফফুস থাকলেও সে তার ত্বকের সাহায্যে শ্বাস প্রশ্বাস নেয়। গেছো ব্যাঙ গাছে চড়লেও পড়ে যায় না। কারণ তখন তার পায়ের পাতা প্যাডের মতো কাজ করে। তাই সে টিকটিকির মতো বেয়ে গাছের উপরে ও নিচে নামতে পারে। গেছো ব্যাঙের পায়ের আঙুল লম্বা ও নরম। তাই সে গাছের ডাল কিংবা পাতায় উল্টো হয়ে ঝুলে থাকতে বা হাঁটতে পারে। তাছাড়া, গেছো ব্যাঙ তার গায়ের রঙ পরিবর্তন করতে পারে। আশপাশের পরিবেশ বা শত্রুর আক্রমণ থেকে লুকোতে সে এই কাজ করে।

যদিও ব্লুবার্ড বিশ্বের বহু সংস্কৃতিতে আনন্দের প্রতীক হিসাবে বিবেচিত হয়। তবে ওই ব্যক্তি বলেন যে তিনি মনে করেন, নীল ব্যাঙটি তার এবং তার ছেলের জন্য সুখ বয়ে এনেছে।

কাকতালীয়ভাবে, লোকটি তার এই ব্যাঙ আবিষ্কারের আগের দিন, হায়োগো প্রিফেকচারের কিনোসাকি মেরিন ওয়ার্ল্ড পরিদর্শন করার সময় কেবলমাত্র একটি নীল জাপানি গেছো ব্যাঙ দেখেছিলেন।

তিনি বলেন, ‘আমি অভিভূত যে এটি এখন আমার ক্ষেতে রয়েছে’। তিনি আরও বলেন, আমার ছেলের জন্মদিনে, এটি আসলে ভালো কিছু বার্তা নিয়ে এসেছে’।

৫ সেপ্টেম্বর লোকটির ছেলে ব্যাঙটিকে তার নার্সারিতে নিয়ে গেলে বাচ্চারা আনন্দে উল্লাস করতে থাকে। তবে এসব ব্যাঙ লালন-পালন করা অপেশাদারদের পক্ষে কঠিন এবং নীল ব্যাঙের শরীর কালো হতে শুরু করায়, লোকটি এটিকে আবার ছেড়ে দেয়। যেখানে তিনি এটি খুঁজে পেয়েছেন সেখানে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ব্যাঙটি।

কিনোসাকি মেরিন ওয়ার্ল্ডের প্রজনন ব্যবস্থাপক বলেছেন, ‘ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি এবং একটি অপরিচিত পরিবেশের কারণে এটি কালো হতে পারে। তাই যদি লোকেরা তাদের খুঁজে পায় তবে তাদের একা ছেড়ে দেওয়া উচিত’।

পৃথিবীতে মোট চার হাজার তিনশ ষাট প্রজাতির ব্যাঙ রয়েছে। বাংলাদেশে পাওয়া যায় এমন কতোগুলো ব্যাঙের অদ্ভূত নামও রয়েছে। যেমন, যাই যাই ব্যাঙ, বামন ব্যাঙ, কটকটি ব্যাঙ, কোলা ব্যাঙ, সোনা ব্যাঙ, পটকা ব্যাঙ, ভেঁপু ব্যাঙ, ঝিঝি ব্যাঙ, পানা ব্যাঙ ও সকির ডাকা ব্যাঙ।

সূত্র: কিয়োডো সংবাদ সংস্থা

এসএনআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।