ইতালিতে ভোট: ডানপন্থীরা এগিয়ে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৬ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
সংগৃহীত

 

 

প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রীর সূচনার পূর্বাভাসে রোববারের (২৫ সেপ্টেম্ব) নির্বাচনে লাখ লাখ ইতালিয় তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন আজ। স্থানীয় সময় রোববার সকাল ৭টা থেকে রাত ১১ পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে।

চলমান ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্বাচনকে গুরুত্বপূর্ণ বলে ধরা হচ্ছে। জনমত জরিপে উঠে এসেছে এবারের নির্বাচনে জয়ী হতে পারেন ডানপন্থীরা। জানা গেছে, ব্রাদার্স অব ইতালি দলটির প্রধান জর্জিয়া মেলোনি এগিয়ে রয়েছেন নির্বাচনী দৌড়ে। তার প্রতিদ্বন্দ্বী জিউসেপ কন্তে সমর্থকদের বলেছেন ভোটটি ঐতিহাসিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ।

৪৫ বছর বয়সী ২০১৮ সালে মাত্র ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন। তবে এবার জয়ী হলে মাত্তেও সালভিনির লিগ এবং সিলভিও বেরলুসকোনির ফোরজা ইতালিয়াকে নিয়ে ডানপন্থী সরকার গঠন করতে পারে তার দল।

ভ্লাদিমির পুতিন ২০১৮ সালে চতুর্থ মেয়াদে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ওই সময় পুতিনকে অভিনন্দন জানাতে ব্রাদার্স অব ইতালি দলের প্রধান জর্জিয়া মেলোনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘রাশিয়ার এই নির্বাচন জনগণের ইচ্ছার দ্ব্যর্থহীন প্রতিফলন’।

ইউরোপ ও রাশিয়া যুদ্ধের জন্য এই নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ মনে হলেও ভোটাররা দেখবেন জ্বালানির মূল্য সাশ্রয়ের বিষয়টি, যেখানে এখন খরচ আকাশচুম্বী।

এদিকে, মেলোনির মূল প্রতিদ্বন্দ্বী মধ্য-বাম ডেমোক্রেট পার্টির নেতা এনরিকো লেত্তাও কম না। তিনি বলেছেন, ‘জর্জিয়া মেলোনি জয় পেলে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে যারা খুশি হবেন, তারা হলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প, ভ্লাদিমির পুতিন এবং ইউরোপের ভিক্টর অরবান।

ইতালির রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার ইতিহাস রয়েছে। দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী ১৯৪৬ সাল থেকে দেশের ৬৮তম সরকারের নেতৃত্ব দেবেন। ইতালির নতুন সরকার বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হবেন আগামীতে এমন ধারণা করা হচ্ছে।

বিশেষভাবে ইউরোপ ও রাশিয়া যুদ্ধের জন্য এই নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ মনে হলেও ভোটাররা দেখবেন জ্বালানির মূল্য সাশ্রয়ের বিষয়টি, যেখানে এখন খরচ আকাশচুম্বী।

সূত্র: রয়টার্স

এসএনআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।