২০২২ সালের শেষে আরও কমবে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৪ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

চলতি বছর ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আরও কমতে যাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে দেশটির রিজার্ভ ২০২২ সালের শেষের দিকে কমে দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন হতে পারে। এদিকে মার্কিন ডলারের বিপরীতে রুপির পতন ঠেকাতে কাজ করে যাচ্ছে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া। বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এরই মধ্যে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ভারতীয় রুপির মূল্য রেকর্ড পরিমাণ কমেছে। কোনোভাবেই স্থানীয় মুদ্রাটির পতন ঠেকানো যাচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে এক বছর আগের তুলনায় দেশটির রিজার্ভ ১০০ বিলিয়ন ডলার কমে ৫৪৫ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। বলা হচ্ছে, রিজার্ভের এই কমার ধারা অব্যাহত থাকবে।

রয়টার্সের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি বছরের শেষ দিকে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আরও ২৩ বিলিয়ন ডলার কমে ৫২৩ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়াবে। যদি এটা হয় তাহলে তা হবে গত দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন রিজার্ভ।

রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ১৬ সেপ্টেম্বর শেষ হওয়া সপ্তাহে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৫ দশমিক ২২ বিলিয়ন ডলার কমে ৫৪৫ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়ায়।

তারপরও পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে ভারত আট দশমিক নয় মাসের আমদানি করতে সক্ষম হবে। যা ২০১৩ সালের চার দশমিক এক মাসের চেয়ে অনেক বেশি।

তাছাড়া বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) নতুন করে ইতিহাসের সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমেছে ভারতীয় মুদ্রার মান। ডলারের মূল্যমান কমাতে একটি চুক্তির সম্ভাবনা হোয়াইট হাউজ বাতিল করে দেওয়া ও ফেডারেল নীতিনির্ধারকদের কঠোর অবস্থানে মার্কিন মুদ্রার মান বেড়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

এমএসএম

 

 

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।