প্রেস টিভির ওপর কানাডার নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৫২ পিএম, ০৪ অক্টোবর ২০২২
ফাইল ছবি

ইরানে গত ১৬ সেপ্টেম্বর পুলিশ হেফাজতে থাকা ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনি নামের এক তরুণীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ শুরু হয়। প্রথম দিকে কোরদেস্তান শহরে বিক্ষোভ শুরু হলেও পরে তা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভকারীরা সহিংস হামলা শুরু করে এবং নিরাপত্তা বাহিনী থেকে শুরু করে সরকারি সম্পত্তির ওপর একের পর এক হামলা চালাতে থাকে।

মসজিদ মাজারসহ বিভিন্ন ধর্মীয় পবিত্র স্থানে বিক্ষোভের সময় অবমাননা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এদিকে দেশজুড়ে এই অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরায়েলকেই দায়ী করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি।

তিনি বলেন, এই ‌‘দাঙ্গা’ ইরানের চিরশত্রু এবং তাদের মিত্রদের দ্বারা প্ররোচিত। তার শাসনের সময়কালে এরকম বিক্ষোভ গত এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি নিরাপত্তা বাহিনীকে এ বিষয়ে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে গতকাল (সোমবার) কানাডা সরকার এক বিবৃতিতে ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানিয়ে বলেছে, মানবাধিকার লঙ্ঘনের জবাবে এই ব্যবস্থা নেওয়া হলো।

আগেই কানাডা ইরানের ২৫ ব্যক্তিকে নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রেখেছে। এছাড়া নয়টি প্রতিষ্ঠান এবং ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি) এবং দেশের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে।

এদিকে ইরানের ইংরেজি ভাষার টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভিকেও নিষেধাজ্ঞার তালিকায় এনেছে কানাডা সরকার। এছাড়া ইরানের স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী বাসিজ, ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অফ স্টাফের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোঃ বাকেরী, আইআরজির কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমাদ ওয়াহিদি, জাতীয় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি, সংসদ স্পিকার বাকের কালিবফ এবং আইআরজিসির কুদস ফোর্সের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কানির ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্র বলছে, এই বিক্ষোভের প্রতি সহিংস প্রতিক্রিয়ায় তারা ‘শঙ্কিত’। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেছেন, শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর তীব্র সহিংস দমনপীড়নের খবরে তিনি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

তিনি বলেন, এই বিক্ষোভকারীরা ‘ন্যায়বিচারের’ জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্র ইরানি নারীদের পাশে রয়েছে যারা তাদের সাহসিকতা দিয়ে বিশ্বকে অনুপ্রাণিত করছে।

টিটিএন

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।