বাইডেনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছেন পুতিন: ক্রেমলিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৭ পিএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২২
রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন /ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের মন্তব্যের পর শুক্রবার নিজেদের প্রতিক্রিয়ায় এ কথা জানিয়েছে ক্রেমলিন।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) জো বাইডেন বলেন, যদি পুতিন আসলেই যুদ্ধ বন্ধ করতে চান, তাহলে আমি তার সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছি।

শুক্রবার ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, এ মুহূর্তে আমাদের কাছে স্বার্থরক্ষার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো, শান্তিপূর্ণ কূটনৈতিক পন্থা অবলম্বন করা। স্বার্থরক্ষায় রুশ ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট আলোচনার জন্য সব সময় প্রস্তুত ছিলেন, আছেন ও থাকবেন।

তবে পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতেও রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আলোচনা কঠিন হবে বলে মনে করেন পেসকভ। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, রাশিয়া ইউক্রেনের যে চারটি অঞ্চল অধিগ্রহণ করেছে, যুক্তরাষ্ট্র সে অধিগ্রহণের স্বীকৃতি দেয়নি।

এদিকে, শুক্রবার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা তাস নিউজ এক প্রতিবেদনে জানায়, জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। সেসময় পুতিন জার্মান চ্যান্সেলরকে বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে পশ্চিমারা যে অবস্থান নিয়েছে তা ধ্বংসাত্মক। জার্মানিকে তাদের অবস্থান বদলানো উচিৎ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট শর্ত দেন, আলোচনার আগে পুতিনকে ইউক্রেন থেকে সব রুশ সেনা প্রত্যাহার করে নিতে হবে। এর পরিপ্রেক্ষিতে পেসকভ বলেন, রাশিয়ার পক্ষে এ শর্ত মানা সম্ভব নয়। ইউক্রেনে আমাদের অভিযান চলবে।

৩০ সেপ্টেম্বর ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া, খেরসন, লুহানেস্ক ও দোনেৎস্ক অধিগ্রহণ বিলে সই করেন পুতিন। এর আগে এ অঞ্চলগুলোতে গণভোট আয়োজন করে রাশিয়া।

তবে এ গণভোটকে সাজানো বলে দাবি করে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলো জানায়, তারা কখনোই ইউক্রেনের চার অঞ্চলকে রাশিয়ার অংশ হিসেবে স্বীকৃতি দেবে না।

সূত্র: আল জাজিরা

এসএএইচ

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।