ইবাদতের পর্যাপ্ত সুযোগ পাবেন ৫ হেফাজত নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০২ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০২১

হেফাজত ইসলামের পাঁচ নেতাকে পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রিমান্ড চলাকালে তাদের ইবাদত করার পর্যাপ্ত সুযোগ করে দেয়ার জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

হেফাজতের ওই নেতারা হলেন- কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি এবং খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির খুরশিদ আলম কাসেমী, কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও খেলাফত মজলিসের সাধারণ সম্পাদক মুফতি শরাফত হোসাইন, ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি মাওলানা জুবায়ের আহমদের ও হেফাজত নেতা মাওলানা সানাউল হক।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) তাদেরকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় ২০১৩ সালে পল্টন থানায় করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদেরকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহ প্রত্যেকের পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ সময় তাদের আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদন মেজবাহ আদালতের কাছে একটি আবেদন করেন। আবেদনে তিনি বলেন, মামলার আসামিরা ধার্মিক। এখন রমজান মাস চলছে। এই রমজানে মুসলমানদের জন্য ইবাদত-বন্দেগির মাস। তাই রিমান্ড চলাকালীন তাদের ইবাদত করার সুযোগ করে দেয়ার জন্য আবেদন করছি।

আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে তাদের ইবাদত করার পর্যাপ্ত সুযোগ করে দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন।

২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। সেদিন রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে তারা। এ ঘটনায় পল্টন থানায় মামলা করা হয়।

জেএ/এএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]