বিচারপতি রুহুল আমিনের দাফন সম্পন্ন


প্রকাশিত: ০৫:৫১ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০১৭

সাবেক প্রধান বিচারপতি এম এম রুহুল আমিনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মাসুদ হাসান চৌধুরী এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বাদ জোহর রাজধানীর উত্তরার ১২ নম্বর সেক্টরের খালপাড় কবরস্থানে বিচারপতি রুহুল আমিনের মরদেহ দাফন করা হয়েছে। এর আগে সকাল ১১টায় সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে বিচারপতি এম এম রুহুল আমিনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী, বিচারপতি সৈয়দ জে আর মোদাচ্ছির, বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনসহ আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারকবৃন্দ, ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি-সম্পাদকসহ সিনিয়র আইনজীবী ও মরহুমের পরিবারের সদস্যরা অংশ নেন।

এ দিকে বিচারপতি এম এম রুহুল আমিনের মৃত্যুতে শোক জানিয়ে তার জানাজার পর সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচার কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়।

গত ১৭ জানুয়ারি ভোরে সাবেক প্রধান বিচারপতি এম এম রুহুল আমিন সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার ওপেন হার্ট সার্জারি হয়েছিল।

বিচারপতি এম এম রুহুল আমিন ২০০৮ সালের ১ জুন থেকে ২০০৯ সালের ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৪২ সালের ২৩ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬৩ সালে এমএ এবং ১৯৬৬ সালে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন রুহুল আমিন। ১৯৬৭ সালে জুডিশিয়াল সার্ভিসে যোগ দেন তিনি। ১৯৮৪ সালে জেলা ও দায়রা জজ হন।

১৯৯৪ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি হন রুহুল আমিন। ২০০৩ সালের ১৩ জুলাই আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান তিনি।

বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে রুহুল আমিন ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। তার দুই ছেলে ব্যারিস্টার রাশেদ আহমেদ সুমন ও ব্যারিস্টার এম. আশরাফ আলী সুজন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী।

এফএইচ/বিএ