ষোড়শ সংশোধনীর রিভিউয়ে আন্তর্জাতিক আইনজীবী চেয়ে আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ এএম, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের অপসারণ-সংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে আপিল বিভাগের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ শুনানিতে আন্তর্জাতিকমানের তিন জন আইনজীবী নিয়োগের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

আবেদন পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রার্থনা করা হয়েছে বার কাউন্সিলের প্রতি। সোমবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল বরাবর এই আবেদন করেন অ্যাডভোকেট একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া। হাইকোর্টে সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিটকারী ৯ আইনজীবীদের মধ্যে একজন হলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক আইনজীবী চেয়ে আবেদন করার হলেও এখনও এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে রিভিউ আবেদন করা হয়নি। যদিও গত ২৮ নভেম্বর রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম জানিয়েছেন, ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করে দেয়া রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন দাখিল করতে আরও ২৭ দিন সময় পাবো।

আইনজীবী একলাস উদ্দিন বলেন, আমরা জানতে পেরেছি রাষ্ট্রপক্ষ স্বল্প সময়ের মধ্যে এই মামলার রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে আবেদন করবেন। মামলাটি জনগুরুত্বপূর্ণ। এজন্য আমরা তিন জন আন্তর্জাতিকমানের সংবিধান বিশেষজ্ঞ আইনজীবীর জন্য আবেদন করেছি।

তিনি বলেন, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। তারা আমাকে এ মামলার বিষয়ে সহযোগিতা করবেন। বার কাউন্সিলের করা আবেদন পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রার্থনা করা হয়েছে।

আবেদনে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রিভিউ শুনানিতে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের বিশিষ্ট অ্যাডভোকেট আগারওয়াল আমবুজ, অ্যাডভোকেট আগারওয়াল অনামিকা গুপ্তা ও অ্যাডভোকেট অধিমোলাম ভেংকটারমনকে নিয়োগের অনুমতি চাওয়া হয়।

প্রসঙ্গত: সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের অপসারণ সংক্রান্ত ক্ষমতা সংসদের হাতে দিয়ে সংবিধানের ষোড়শ সশোধনী বিষয়ে হাইকোর্ট থেকে গত ০১ আগস্ট সকালে ৭৯৯ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়।

গত ০৩ জুলাই ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে হাইকোর্টের দেয়া রায় বহাল রেখে সর্বসম্মতিক্রমে চূড়ান্ত রায়টি দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে সাত বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চ। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলও খারিজ করে দেন সর্বোচ্চ আদালত।

ফলে মহাজোট সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল হয়ে যায়। ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনা হয়েছিল।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও বিভিন্ন সময়ে জানিয়েছেন, ‘এ রায়ের বিষয়ে পড়া হচ্ছে। ভালোভাবে পড়ে, পরীক্ষা করে পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন জানানো হবে। এজন্য সময় লাগছে।

এফএইচ/জেডএ/এমএস/এমআরএম/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :