মায়ের কাছ থেকে নিয়ে যাওয়া শিশুকে হাজির করার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৩ এএম, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭

মায়ের কাছ থেকে নিয়ে যাওয়ার পর ফেরত না দেয়াই খুলনার সোনাডাঙ্গার ২০ মাস বয়সী শিশু মৌসুম গাইন নীলকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ওই শিশুকে সঙ্গে নিয়ে আগামী ৭ জানুয়ারি দাদি ও চাচাকে হাজির হতে বলেছেন আদালত।

শিশু নীলের মায়ের করা এক রিট আবেদন শুনানি নিয়ে বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত অবকাশকালীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আইনুন নাহার সিদ্দিকা।

আইনজীবী আইনুন নাহার সিদ্দিকা সাংবাদিকদের জানান, শিশু মৌসুম গাইন নীলকে চলতি বছরের ১৭ এপ্রিল তার দাদি ও চাচা এসে তাদের সঙ্গে করে নিয়ে যায়। এরপর আর তাকে ফেরত না দেয়ায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন তিনি। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আগামী ৭ জানুয়ারি বাচ্চাটিকে হাজির করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, যেহেতু বাচ্চাটি এখনও মায়ের দুধ খায়। সে হিসেবে বাচ্চাটি মায়ের কাছেই থাকবে। আদালত এ বিষয়ে ৭ জানুয়ারি আদেশ দেবেন।

নীলের মা ফরিদা ইয়াসমিন মনি বলেন, আমার স্বামী নিউটন গাইন সনাতন ধর্মাবলম্বী ছিলেন। সে ধর্মান্তরিত হয়ে লিটন হোসেন নাম ধারণ করেন। এরপর আমাদের বিয়ে হয়। তার পরিবার প্রথমে আমাদের বিয়ে মেনে নিতে পারেনি। কিন্তু আমার সন্তান হওয়ার পর থেকে ওদের সঙ্গে আমাদের একটি ভালো সম্পর্ক হয়। ঢাকার মুগদার বাসায় আমার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা আসা যাওয়া করত।’

তিনি আরও বলেন, ‘একদিন আমার শ্বশুরবাড়ি থেকে আমার কাছে দুই লাখ টাকা দাবি করে। কিন্তু ওই টাকা দিতে না পারায় স্বামীর সঙ্গে আমার দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এ দ্বন্দ্বের জের ধরে আমার স্বামী আমাকে ছেড়ে চলে যায়। তারপর এক পর্যায় আমার সন্তানকেও তারা নিয়ে যায়। পরে আমি আমার স্বামী-শাশুড়ির বিরুদ্ধে যৌতুক মামলা দায়ের করি। তা সত্ত্বেও আমার সন্তানকে না পাওয়ায় আমি হাইকোর্টে রিট করি। রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ আমার সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে দাদি ও চাচাকে উপস্থিত হওয়ার আদেশ দিয়েছেন।

রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইজিপি, খুলনার পুলিশ কমিশনার, সোনাডাঙ্গা থানার ওসি, দাকোপ থানার ওসি, শিশুর চাচা রিপন, রিপনের মা সুষমা গাইনকে বিবাদী করা হয়।

এফএইচ/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :