‘মানহানির অভিযোগ’ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩০ পিএম, ০৬ মার্চ ২০১৮

‘আমার দেশ’ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে আনা মানহানির অভিযোগ তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম এ কে এম মাঈন উদ্দিন সিদ্দিকী এ আদেশ দেন।

আদালত বলেন, মাহমুদুর রহমানের বক্তব্য তদন্ত করবে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনে মামলা হয়েছে তা রাজধানীর তেজগাঁও থানার ওসিকে তদন্ত করে আগামী ১৭ এপ্রিলের মধ্য প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আদালত এ আদেশ দেন।

দেশ-বিদেশের মানুষের কাছে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সম্মানহানির অভিযোগে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী। মামলার বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন বাদী নিজেই।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ১ মার্চ বগুড়ার একটি হোটেলে সাংবাদিক ও পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় মাহমুদুর রহমান মন্তব্য করেন ‘বাংলাদেশে সন্ত্রাসের আমদানিকারক বর্তমান তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। আমরা যারা বয়সে প্রবীণ তারা জানি বাংলাদেশে সন্ত্রাসের জনকের নাম হচ্ছে হাসানুল হক ইনু। সে জঙ্গিবাদ নিয়ে আমাদের শিক্ষা দেয়। আমাদের সামনে বড় বড় কথা বলে। দেশে কারও লজ্জা শরম নেই। বর্তমানে দেশে কোন স্বাধীনতা নেই, গণতন্ত্র নেই। ক্ষমতায় আছে একটি ফ্যাসিবাদী অবৈধ সরকার যার হুকুমে বিচার বিভাগ, পুলিশ, র্যাবসহ সব প্রশাসনিক বিভাগ, দেশের গণমাধ্যমকে শেখ হাসিনা সরকারের হুকুম মেনে চলতে হয়। তিনি যা বলেন সকল বিভাগকে তার হুকুম মেনে চলতে হয়।’

আসামির এ ধরনের বক্তব্য ইউটিউব ও অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এতে দেশ বিদেশের মানুষের কাছে বাংলাদেশ সরকার ও ভারত সরকারের সম্মানহানি করা হয়েছে যা এক হাজার কোটি টাকার মানহানি এবং রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল এ দাবি করে মামলাটি করেছেন বাদি। মামলাটি আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন তিনি।

জেএ/এমএআর/পিআর