সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত রুলের শুনানি মঙ্গলবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০১৮

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপ-নির্বাচন এবং উত্তর-দক্ষিণ সিটির নতুন যুক্ত হওয়া ৩৬টি ওয়ার্ডের ওপর নির্বাচন স্থগিত জারি সংক্রান্ত রুলের শুনানি আগামী মঙ্গলবার (৩ এপ্রিল) ধার্য করেছেন হাইকোর্ট। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন ব্যারিস্টার এহসানুর রহমান।

রোববার রিটকারী ও সিটি কর্পোরেশন উভয়পক্ষের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টের বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ পরবর্তী শুনানির দিন ঠিক করে আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারী ও বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আওয়ালের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে সময় আবেদন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ এস এম নাজমুল হক।

গত ২৫ মার্চ রিট আবেদনকারীপক্ষের এক আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মামলার শুনানি এক সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। আদালতে সময় চেয়ে আবেদন করেছিলেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রোববার (১এপ্রিল) শুনানির দিন নির্ধারণ করেছিলেন হাইকোর্ট। সময় চাওয়ার পর আজ তা পিছিয়ে ৩ এপ্রিল দিন ঠিক করা হয়।

এর আগে ১৭ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচন ও সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচন স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে, ওই নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের যৌথ বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

ডিএনসিসি মেয়রের শূন্য পদে উপনির্বাচনের ঘোষিত তফসিল স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে পৃথক দুটি রিট দায়ের করেন রাজধানী উত্তরের বেরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম ও ভাটারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান।

গত ১৮ জানুয়ারি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নতুন সংযোজিত ১৮টি ওয়ার্ডের নির্বাচন চার মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি তারিক-উল হাকিম ও বিচারপতি এম ফারুকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি জারি করা নির্বাচন সংক্রান্ত তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। একই সঙ্গে নির্বাচনের ওপর আদালত স্থগিতাদেশ দেন।

দুটি পৃথক হাইকোর্ট বেঞ্চের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ উভয় সিটির নির্বাচনের ওপর হাইকোর্টের দেয়া স্থগিতাদেশ বহাল রাখেন। একই সঙ্গে ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি নির্বাচন স্থগিত করে দেয়া পৃথক তিনটি রুল দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হাইকোর্টকে নির্দেশ দেন। পাশাপাশি রুল শুনানির জন্য বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হকের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ নির্ধারণ করে দেন।

এফএইচ/এমএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :