চিকিৎসকদের কর্মবিরতি বন্ধের রিটের আদেশ বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৯ পিএম, ১১ জুলাই ২০১৮

যে কোনো পরিস্থিতিতে দেশের সব সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি ডাকার বৈধতার প্রশ্ন তুলে তা বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে দায়ের করা রিটের শুনানি শেষ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আদেশ দেয়ার জন্য বৃহস্পতিবার দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মোহাম্মদ খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে আংশিক শুনানি শেষে আদেশের জন্য বৃহস্পতিবার দিন ঠিক করেছেন। আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট ড. বশির আহমেদ নিজে।

রিটটি সংশ্লিষ্ট আদালতে দুপুর ১২টার দিকে শুনানির জন্য উপস্থাপন করার পর এর ওপর শুনানির জন্য আইনজীবীকে বিরতির পর আসার জন্য বলেন এবং বেলা ২টায় শুনানি করার সময় নির্ধারণ করেন। বেলা ২টার পর রিটের বিষয়ে শুনানি করতে গেলে রিটটি আবেদনে ভুল থাকায় সেটি সংশোধন করার জন্য আইনজীবীকে বলেন আদালত।

রিটের ভুল সংশোধন করার শুনানি করা হয়। এরপর আদালত মামলাটির বিষয়ে আদেশের জন্য বৃহস্পতিবার দিন ঠিক করেন।

এর আগে বুধবার সকালে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (সুপ্রিম কোর্ট বার) সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট ড. বশির আহমেদ।

রিটে যে কোনো পরিস্থিতিতে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি ডাকার বৈধতার প্রশ্ন তুল তা বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।

একই সঙ্গে, রিটে প্রত্যেক জেলা সদর হাসপাতালে কমপক্ষে ৩০ শয্যা বিশিষ্ট আইসিইউ অথবা সিসিইউ ইউনিট স্থাপনের জন্য নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। রিটের বিবাদীরা হলেন, স্বাস্থ্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক।

এই আইনজীবী বলেন, চিকিৎসা সেবার সঙ্গে মানুষের জীবন-মৃত্যুর সম্পর্ক। এ পেশায় যারা কাজ করেন তারা কিছু হলেই কর্মবিরতির ডাক দেন। সাধারণ মানুষকে এভাবে জিম্মি করে কর্মবিরতির ডাক দেয়া বেআইনি। এ কারণে আদালতে রিট দায়ের করা হয়েছে।

এফএইচ/এমআরএম/এমএস