হাইকোর্টে শহিদুল আলমের আবারও জামিন আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪০ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
ফাইল ছবি

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলায় আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলমের পক্ষে তার আইনজীবীরা হাইকোর্টে আবারও জামিন আবেদন করেছেন। মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ জামিন আবেদন করা হয়। আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া জামিন আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জামিন আবেদনের উপর আগামীকাল (বুধবার) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে শুনানি হতে পারে।

গত ১১ সেপ্টেম্বর নিম্ন আদালতে শহিদুল আলমের জামিন নামঞ্জুর হয়। বিচারিক আদালতে জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করার জন্য হাইকোর্টের একটি বেঞ্চের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে তার আবেদন খারিজ করা হয়। এরপর তারা আবারও হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।

এর আগে গত ৪ সেপ্টেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় আলোকচিত্রী শহিদুল আলমের জামিন আবেদন শুনতে বিব্রতবোধ করেছিলেন হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ। গত ২৮ আগস্ট হাইকোর্টে শহিদুল আলমের জামিন বিষয়ে করা আবেদন শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি খন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ বিব্রত বোধ করেন।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে ‘উসকানিমূলক মিথ্যা’ প্রচারের অভিযোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা মামলায় গত ৫ আগস্ট রাতে শহিদুল আলমকে তার ধানমন্ডির বাসা থেকে গ্রেফতার করে ডিবি। সাতদিনের রিমান্ড শেষে গত ১২ আগস্ট শহিদুলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন নিম্ন আদালত।

ওই মামলায় গত ৬ আগস্ট ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম শহিদুল আলমের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। ১৪ আগস্ট ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিন আবেদন করা হলে ১১ সেপ্টেম্বর শুনানির জন্য দিন ধার্য রাখেন। এরপর ১৯ আগস্ট শুনানির তারিখ এগিয়ে নেয়ার জন্য আবেদন করা হলে তা খারিজ করা হয়।

২৬ আগস্ট শহিদুল আলমের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন চাইলে ওই আদালত শুনানির জন্য তা গ্রহণ করেননি। এ অবস্থায় ২৮ আগস্ট হাইকোর্টে তার জামিন চেয়ে আবেদন করা হয়। ২৯ আগস্ট আবেদনটি শুনানির জন্য আরজি জানানো হয়।

৪ সেপ্টেম্বর আবেদনটির ওপর শুনানিতে হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চের একজন বিচারপতি বিব্রতবোধ করেন জানিয়ে আদালত বিষয়টি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোর আদেশ দেন। প্রধান বিচারপতি বিষয়টি বিচারপতি রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে পাঠালে ১০ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট শহিদুল আলমের আবেদন পরদিন ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিম্ন আদালতে নিষ্পত্তির আদেশ দেন। সর্বশেষ ১১ সেপ্টেম্বর ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েস শহিদুল আলমের জামিন আবেদন নাকচ করেন।

এফএইচ/আরএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :